1. abulkasem745@gmail.com : abulkasem745 :
  2. Amranahmod9852@gmail.com : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. Arafathussain736@gmail.com : Arafathussain736 :
  4. didar.kulaura@gmail.com : didarkulaura :
  5. Press.loskor@gmail.com : Press loskor : Press loskor
  6. Rezwanfaruki@gmail.Com : HolyBd24.com :
  7. Sohelrana9019@gmail.com : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. syedsumon22@yahoo.com : syed sumon : syed sumon
শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কোরবানপুর যুব সমাজের উদ্যোগে দেশের এবং প্রবাসীদের অর্থায়নে অবহেলিত রাস্তার আংশিক মেরামতের কাজ শুরু “আজকের মেহেরপুর” প্রতিনিধিদের পরিচয়পত্র প্রদান রেজিস্ট্রেশন ও ডাক্তার পদবীর দাবীতে উত্তাল হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় শাহজালাল উপশহর সিল আপ গ্রুপের কমিটি গঠন অনুষ্ঠিত হয় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার দাবিতে মেহেরপুর জেলা বিএনপি’র গণ-অনশন উপশহরে খেলার মাঠে মেলা দ্রুত বন্ধ করার দাবিতে মানবন্ধন তাহিরপুরে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন: ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন এমপি বাংলাদেশে থাকা নাগরিকদের নিরাপত্তায় সৌদি রাষ্ট্রদূতের সন্তোষ একাদশ জাতীয় সংসদের ১৫তম অধিবেশন শুরু: যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপি নেতাদের বক্তব্য জনগণের বিনোদনের উৎসে পরিনত হয়েছে: সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ধর্ষণ মামলায় নারীর ‘দুশ্চরিত্র’ প্রমাণে দুটি ধারা বাতিল চেয়ে রিট

ভুয়া এনআইডি বানিয়ে কোটি টাকা আত্মসাৎ, ইসির ৪৪ জন বরখাস্ত

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১
  • ১৭ বার ভিউ

জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি), ট্রেড লাইসেন্স ও টিন সার্টিফিকেট জালিয়াতি করে ফ্ল্যাট মালিক কিংবা ক্রেতা সেজে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে লোন নিয়ে প্রতারণা করতো একটি চক্রটি। মঙ্গলবার (২ মার্চ) খিলগাঁও ও রামপুরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে মতিঝিল গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

জাতীয় পরিচয়পত্র পরিবর্তন করে তাদের এই জালিয়াতির কাজে সহায়তা করতেন নির্বাচন কমিশনের কয়েকজন নিম্ন শ্রেণির কর্মকর্তা। জালিয়াতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে ৪৪ জনকে বরখাস্ত করেছে নির্বাচন কমিশন। এ পর্যন্ত ১১টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে প্রতারণার তথ্য পেয়েছে ডিবি পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- আল আমিন ওরফে জমিল শরীফ, খ ম হাসান ইমাম ওরফে বিদ্যুৎ, আব্দুল্লাহ আল শহীদ, রেজাউল ইসলাম ও শাহ জাহান। তাদের কাছ থেকে একটি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়েছে। যার নম্বর- ঢাকা মেট্রো-গ-২০-৩৭৯৭। এর আগে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি বিপ্লব নামে আরও একজনকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ।

বুধবার (৩ মার্চ) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার।

তিনি বলেন, ভুয়া এনআইডি, টিনসহ অন্যান্য তথ্য জালিয়াতির মাধ্যমে ঢাকা ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে প্রতারণার অভিযোগে গত বছরের ডিসেম্বরে খিলগাঁও ও পল্টন থানায় মামলা হয়। এ মামলা তদন্ত শুরু করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের মতিঝিল বিভাগ।

তদন্তে ডিবি পুলিশ জানতে পারে, প্রতারক চক্রটি ভুয়া এনআইডি, ভুয়া ট্রেড লাইসেন্স, ভুয়া টিন সার্টিফিকেট ব্যবহার করে ঢাকা ব্যাংক লিমিটেডসহ অন্যান্য বিভিন্ন ব্যাংক থেকে ফ্ল্যাট লোন নিয়ে পরিশোধ না করে টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়ে যায়। প্রাথমিক তদন্তে বিপ্লব নামে একজনকে ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করে।

জিজ্ঞাসাবাদে বিপ্লব জানায়, ভুয়া এনআইডি তৈরির সঙ্গে জড়িত নির্বাচন কমিশন অফিসের নিচের শ্রেণির কিছু অসাধু কর্মচারী। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি বিপ্লবকে গ্রেফতারের পর তিনি ১ মার্চ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তার দেয়া তথ্যে ডিবি পুলিশ প্রতারক চক্রের মূলহোতা আল আমিনকে গ্রেফতার করে। আল আমিনকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে প্রতারণার সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন লোকদের সন্ধান পাওয়া যায়।

তার দেয়া তথ্য মতে, বিদ্যুতকে গ্রেফতার করা হয়। বিদ্যুৎ ও আল আমিন তাদের অন্যান্য সহযোগীদের প্রয়োজন অনুযায়ী কখনো ক্রেতা আবার কখনো বিক্রেতা, কখনো জমির মালিক কখনো ফ্ল্যাটের মালিক সাজায়। আব্দুল্লাহ আল শহীদ ভুয়া এনআইডি তৈরির মিডলম্যান হিসেবে কাজ করে। রেজাউল ইসলাম ও শাহ জাহান ভুয়া ট্রেড লাইসেন্স ও টিন সার্টিফিকেট তৈরি করে।

যেভাবে প্রতারকরা ব্যাংকের চোখ ফাঁকি দেয়

প্রথমে প্রতারকরা ব্যাংকে যায়। তারপর তারা ফ্ল্যাট কেনার জন্য লোন চায় ব্যাংকের কাছে। তখন ব্যাংকের পক্ষ থেকে বলা হয়, কোন ফ্ল্যাট কিনবেন সেখানে ব্যাংক ভিজিট করবে। তখন প্রতারকরা ভিজিটের জন্য ব্যাংকারসহ ফ্ল্যাট দেখতে যাবে। প্রতারকরা আগে থেকেই সাইনবোর্ড দেখে কোন ফ্ল্যাট বিক্রি হবে তাদেরকে ঠিক করে রাখে। তারপর ব্যাংকের লোকসহ ফ্ল্যাট ভিজিটে গেলে ব্যাংক সবকিছু ঠিক দেখতে পায়।

পরবর্তীতে প্রতারক দল ফ্ল্যাট মালিকের কাছ থেকে এনআইডি ও ফ্ল্যাটের কাগজপত্রের ফটোকপি নিয়ে আসে। সরল বিশ্বাসে ফ্ল্যাট মালিক এনআইডি ও ফ্ল্যাটের কাগজপত্র দিয়ে দেয়। তারপর প্রতারকরা ফ্ল্যাট মালিকের এনআইডি হুবহু নকল করে শুধুমাত্র ছবি পরিবর্তন করে এনআইডি তৈরি করে। যে এনআইডি আবার সার্ভার বা নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে দেখতে পায়। ব্যাংকের কর্মকর্তারা এনআইডি সার্ভারে সার্চ দিলে তা সঠিক দেখতে পায়।

এরপর ব্যাংক প্রতারকদের অফিস ভিজিটে যান। তখন প্রতারকরা অফিস ভাড়া নেয় ১-২ মাসের জন্য। ব্যাংকের লোক প্রতারকদের অফিস ভিজিটে গিয়ে অফিস গোছানো এবং সব ঠিক আছে দেখতে পায়। তারপর ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশন করার দিন ব্যাংকের লোক উপস্থিত থাকে। যেহেতু ফ্ল্যাট ভিজিট করেছে, এনআইডি সার্ভারে এনআইডি সঠিক পেয়েছে, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সঠিক পেয়েছে, সব কিছু ঠিক দেখে ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশন হওয়ার ১/২ দিন পর লোনের পে-অর্ডার দিয়ে দেয়া হয় ফ্ল্যাটের সাজানো ক্রেতা ও বিক্রেতাকে। পরবর্তীতে যখন লোনের কিস্তি পরিশোধ করে না তখন তারা প্রতারকদের দেয়া এনআইডির বিস্তারিত দেখতে গেলে ব্যাংক বুঝতে পারে যে, ব্যাংক প্রতারিত হয়েছে।

ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার সংবাদ সম্মেলনে বলেন, চক্রটি কৌশলে কোনো বাড়ি বা ফ্ল্যাটের মালিকের কাছে থেকে ফ্ল্যাট কিনবে বলে তার এনআইডি ও অন্যান্য কাগজ নিয়ে নেয়। এরপর নির্বাচন কমিশনের অসাধু কর্মচারীদের সহযোগিতায় এনআইডির সব তথ্য ঠিক রেখে শুধুমাত্র ছবি পরিবর্তন করে তা ব্যাংক কর্তৃপক্ষের কাছে উপস্থাপন করে। পরবর্তীতে ব্যাংক যখন এনআইডি সার্ভারে যাচাই করতে যায়, তখন সব তথ্য সঠিক পায়। সার্ভারের এসব তথ্য দেখে আশ্বস্ত হয় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ এবং তারা লোন অনুমোদন করে।

এসব প্রতারণায় ব্যাংকের কেউ জড়িত কি-না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান তিনি। একই সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের যারা জড়িত আছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। ৪৪ কর্মচারীকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে নির্বাচন কমিশন থেকে ডিবি পুলিশকে জানানো হয়েছে।

গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে খিলগাঁও থানায় ও পল্টন থানায় পৃথক দুটি মামলা রুজু করা হয়েছে।

নিউজ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

উপদেষ্টা মন্ডলী

কাউন্সিলর এডভোকেট ছালেহ আহমদ সেলিম,
এডভোকেট গিয়াস উদ্দিন আহমদ,
প্রভাষক ডাঃ আক্তার হোসেন,
প্রকাশনা ও সম্পাদক রেজওয়ান আহমদ,
প্রধান সম্পাদক কবি এম এইচ ইসলাম,
বার্তা সম্পাদক এমরান আহমদ,
ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আব্দুল আলী দেওয়ান আব্দুল্লাহ,
সহ ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আমির হোসেন,
সাহিত্য সম্পাদক কবি সোহেল রানা,
বিভাগীয় সম্পাদক আমিনুর ইসলাম দিদার

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com