1. abulkasem745@gmail.com : abulkasem745 :
  2. Amranahmod9852@gmail.com : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. Arafathussain736@gmail.com : Arafathussain736 :
  4. didar.kulaura@gmail.com : didarkulaura :
  5. Press.loskor@gmail.com : Press loskor : Press loskor
  6. Rezwanfaruki@gmail.Com : HolyBd24.com :
  7. Sohelrana9019@gmail.com : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. syedsumon22@yahoo.com : syed sumon : syed sumon
শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০১:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কোরবানপুর যুব সমাজের উদ্যোগে দেশের এবং প্রবাসীদের অর্থায়নে অবহেলিত রাস্তার আংশিক মেরামতের কাজ শুরু দৈনিক সকালবেলা সম্পাদক, বিএসপির মহাসচিব, বাংলাদেশ বেতারের ইংরেজি সংবাদ পাঠক এ্যাডভোকেট সৈয়দ এনামুল হকের দাফন সম্পন্ন ফ্রান্সে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) কে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে ফেঞ্চুগঞ্জে মানববন্ধন সুনামগঞ্জে সীমান্তে চুরির মোটর সাইকেল ভারতের পাচার কালে কিশোর গেংগের প্রধানসহ ৩জন চোর গ্রেফতার সুনামগঞ্জের কাইয়ারগাওঁ গ্রামে সন্ত্রাসীদের দাড়াঁলো অস্ত্রের আঘাতে একই পরিবারের ৮জন আহত মতলব দক্ষিনে বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ উদ্ধার আপন ভাইয়ের ছেলের হাতে ফুফু খুন আইজিপি’র সাথে ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সাক্ষাত আমরা যুদ্ধ চাই না, তবে মোকাবেলার শক্তি অর্জন করতে চাই গাজীপুর মহানগর ব্যবসায়ীবৃন্দদের সাথে মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার এর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত তাহিরপুরে মাটিয়ান হাওরের বেরী বাঁধ কাটার অভিযোগে ইজারাদারের বিরুদ্ধে মানবন্ধন রিমান্ড শেষে কারাগারে দেলোয়ার

২০৪১ সালের মধ্যে দেশে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০
  • ১৩ বার ভিউ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ২০৪১ সালের মধ্যে দেশে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। শহরের পাশাপাশি গ্রামের মানুষও যাতে বিদ্যুৎ পায় সেই ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মানুষের আর্থিক সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য সরকার ভর্তুকিসহ সব ধরনের সহযোগিতা করছে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন দেশের মানুষের জীবন মানের উন্নয়ন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন অনুযায়ী আমরা রাস্তাঘাট, বিদ্যুৎসহ সব কিছুর উন্নয়ন করছি যেন বাংলার মানুষের মুখে হাসি ফোটে।

বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩১টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন নিশ্চিতকরণে দুটি পাওয়ার প্ল্যান্ট, ১১টি গ্রিড সাব-স্টেশন, ছয়টি নতুন সঞ্চালন লাইন উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দুটি পাওয়ার প্ল্যান্ট উদ্বোধন করেন তিনি।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী এর আগে ২৫৭টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন উদ্বোধন করেছেন। ৩১ উপজেলা উদ্বোধনের পর মোট ২৮৮টি উপজেলা শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আসবে। ফলে দেশের ৯৭ শতাংশ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা ভোগ করবে।

এ সময় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ তার মন্ত্রণালয়ের কার্যালয় থেকে অনুষ্ঠানে সংযুক্ত হন। মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং ২৭টি জেলার জনপ্রতিনিধিরাও ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী উপকারভোগী নোয়াখালী, গোপালগঞ্জ, পটুয়াখালী, কুমিল্লা ও মানিকগঞ্জ জেলার বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় করেন এবং তাদের বক্তব্য শোনেন। এর মধ্যে স্কুলছাত্রী, কৃষক, শিক্ষক, গৃহিণী ও মসজিদের ইমামও বক্তব্য রাখেন। তারা বিদ্যুতের সুবিধা ও উন্নয়নের কথা বিস্তারিত তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি-জামায়াত সরকারের আমলে দেখা যেত বাজেটের আগে গোপালগঞ্জের উন্নয়নের কথা বলা হতো। কিন্তু বাজেটের সময় দেখা যেত সেই টাকা কোথায় জানি চলে গেছে। গোপালগঞ্জে বিদ্যুৎ পেতাম না। জেনারেটর চালিয়ে বাতি জ্বালাতে হতো। আমরা সেভাবে কোনো জেলার উন্নয়ন করি না। তার একটি দৃষ্টান্ত আজ দেখা যাবে। বগুড়া জেলায় ১১০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্রের উদ্বোধন করা হচ্ছে। এছাড়া ওই জেলার মহাস্থানগড় ও শেরপুরে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হবে।

তিনি বলেন, ২০২১ থেকে ২০৪১ সালের মধ্যে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। সারাদেশে ইকোনমিক জোন করা হচ্ছে, সেখানে বিদ্যুৎ দেয়া হবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অংশ হিসেবেই এ উদ্যোগ। গ্রামকে শহরে রূপান্তর করা হবে। সব সুযোগ-সুবিধা যাতে সেখানে পাওয়া যায় সেদিকে নজর দেয়া হচ্ছে। পল্লী বিদ্যুতের মাধ্যমে ওইসব এলাকায় বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। শহর আর গ্রামের মধ্যে যেন পার্থক্য না থাকে। গ্রামের মানুষ যেন শহরের সুবিধা থেকে বঞ্চিত না হয়।

শেখ হাসিনা বলেন, এ দেশে যারা ব্যবসা-বাণিজ্য করতো এবং ইন্ডাস্ট্রি চালাত এক সময় বিদ্যুতের জন্য তাদের মধ্যে হাহাকার ছিল। তাদের জেনারেটর দিয়ে এসব শিল্প-কলকারখানা পরিচালনা করতে হতো। এভাবে প্রতিটি ক্ষেত্রেই একটা দুর্বিষহ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছিল। আমাদের প্রচেষ্টা ছিল সার্বিক উন্নয়নে কাজ করব। ’৯৬ সালে আমরা যখন সরকার গঠন করি তখন বিদ্যুতের অবস্থা খুব করুণ ছিল। আমরাই বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করে বিদ্যুতের উন্নয়নে কাজ শুরু করেছিলাম। ২০০৯ সালে সরকার গঠনের পর থেকে এ পর্যন্ত বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধি করতে পেরেছি। বিদ্যুৎ উন্নয়ন বহুমুখী কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। যেখানে গ্যাস আছে সেখানে গ্যাস দিয়ে আর যেখানে কয়লা আছে সেখানে কয়লা দিয়ে উৎপাদন করছি। দিনাজপুরে আমরা কয়লা দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করি।

বিদ্যুৎ বিভাগে কর্মরতদের ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনারা অত্যন্ত কঠোর পরিশ্রম করছেন বলেই আজ বিদ্যুৎ বিভাগে উন্নয়ন করা সম্ভব হচ্ছে।

নিউজ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

উপদেষ্টা মন্ডলী

কাউন্সিলর এডভোকেট ছালেহ আহমদ সেলিম,
এডভোকেট গিয়াস উদ্দিন আহমদ,
প্রভাষক ডাঃ আক্তার হোসেন,
প্রকাশনা ও সম্পাদক রেজওয়ান আহমদ,
প্রধান সম্পাদক কবি এম এইচ ইসলাম,
বার্তা সম্পাদক এমরান আহমদ,
ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আব্দুল আলী দেওয়ান আব্দুল্লাহ,
সহ ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আমির হোসেন,
সাহিত্য সম্পাদক কবি সোহেল রানা,
বিভাগীয় সম্পাদক আমিনুর ইসলাম দিদার

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com