1. [email protected] : abulkasem745 :
  2. [email protected] : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. [email protected] : Arafathussain736 :
  4. [email protected] : didarkulaura :
  5. [email protected] : Press loskor : Press loskor
  6. [email protected] : HolyBd24.com :
  7. [email protected] : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. [email protected] : syed sumon : syed sumon
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১০:৩৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কোরবানপুর যুব সমাজের উদ্যোগে দেশের এবং প্রবাসীদের অর্থায়নে অবহেলিত রাস্তার আংশিক মেরামতের কাজ শুরু ঝড়ে পন্টুন থেকে নদীতে পড়া সেই মাইক্রো উদ্ধার, নিখোঁজ চালক বাজেট অধিবেশন শুরু ২ জুন চীনের ৫ লাখ টিকা নিয়ে বুধবার ফিরবে বিমান বাহিনীর প্লেন বাগেরহাটে আ.লীগের সভাপতির বাড়িতে যুবলীগ নেতার হামলা-লুট খুলনা বিভা‌গে করোনায় আক্রান্ত ৩২ হাজার ছাড়াল, মৃত্যু ৫৯০ ঈদ উপলক্ষে ভোমরা স্থলবন্দরে পাঁচ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ বেনাপোল সীমান্তে ৫টি পিস্তল ও ৭ রাউন্ড গুলি উদ্ধার গোবর-গোমূত্র করোনার বিরুদ্ধে অকার্যকর, ভারতীয় চিকিৎসকদের সতর্কতা মাধবপুরে চোরাকারবারীরা বেপরোয়া আল আকসায় হামলার জবাবে ইসরায়েলে পাল্টা রকেট হামলা হামাসের

সিলেটে করোনা রোগীরা অ্যাটম বোমা’ হয়েই ঘুরোঘুরি করছেন

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২০
  • ২০ বার ভিউ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃঃ সিলেট বিভাগে এ পর্যন্ত মোট ৩৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ৬ জন, হবিগঞ্জের ১৮ জন, মৌলভীবাজারের ৩ জন ও সুনামগঞ্জের ৬ জন রয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধিন ১৯ জন। বাকিদের মধ্যে কয়েকজন ‘সঙ্গনিরোধ’ নীতিমালা মানলেও বেশিরভাগই বিষয়টি মানছে না বলে জানা গেছে। মারাত্মক অসতর্কভাবে হাট-বাজারে যাচ্ছেন এবং সর্বত্রই অবাধ যাতায়াত করছেন আক্রান্ত কয়েক ব্যক্তি। এতে সাধারণ মানুষের মাঝে দেখা দিয়েছে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। সিলেটে কোয়ারেন্টিন নীতিমালা অমান্যকারী আক্রান্তরা চারদিকে ‘অ্যাটম বোমা’ হয়েই ঘুরোঘুরি করছেন বলে মন্তব্য করছেন অনেকে। এদিকে, প্রশাসনের কড়া নজরদারি, বিভিন্ন স্থানে প্রতিদিনই পুলিশ-র‌্যাবসহ প্রশাসনের লোকেরা এমন ব্যক্তিদের জরিমানার আওতায় আনলেও তারা এসব বিপজ্জনক কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকছেন না- এমন খবরও পাওয়া যাচ্ছে। সুনামগঞ্জের এক সাংবাদিক এ বিষয়ে কিছু ভয়াবহ চিত্র তুলে ধরেছেন তার ফেসবুক ওয়ালে। ওই সাংবাদিক লিখেছেন- ‘‘সুনামগঞ্জে ২৩ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) নতুন করে আরও চারজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে একজন নারী। বিস্তারিত জানতে আক্রান্ত চারজনের এক তরুণকে সকালে ফোন দিলাম। ফোন ধরলেন তার ফুফু। জানতে চাইলাম তিনি কই? ফুুফুর উত্তর : হে তো বাজারও গেছে। -বাজারও! তার কোনো সমস্যা নাই? ফুফু : না, হে তো ভালা। আমরা ১৩জন নারাইনগঞ্জ কামও আছলাম। গত বৃহস্পতিবার আইছি। তিন-চারদিন আগে তার জ্বর অইছিল। ডাক্তার দেখাইয়া ভালা অইছে। হি দিন বুলে তার রক্ত নিছে। আজকু সকাল থাকি খালি ফোন ফাইরামরে বাবা। এর কোনতা অইছে না কি-তা বেটা? দ্বিতীয় ব্যক্তির কাছে ফোন করতেই তিনি জানালেন সিলেটে আছেন। ওই ব্যক্তির মূল বাড়ি রংপুরে। চাকরির কারণে আছেন সুনামগঞ্জে। আপনি না করোনা আক্রান্ত। সিলেটে কি করছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বললেন- -না না, আমার তো এমনিতে কোনো সমস্যা নেই। গত ১৯ তারিখে সামান্য জ্বর হওয়ার পর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে ডাক্তার দেখিয়েছি। ওষুধ খেয়ে এখন ভালো আছি। সেদিন পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়েছিলাম। এখন জ্বরটর কিচ্ছু নেই। আজ সকালে ফোন করে বলছে আমার কারোনা পজিটিভ। তাই আবার পরীক্ষা করানোর জন্য সিলেটে এসেছি। আবার পরীক্ষা? -তারাই বলছে, চাইলে আবার পরীক্ষা করতে পারি। মনের সন্দেহ দূর করতে। – লকডাউনের মধ্যে গেলেন কিভাবে ভাই? -আসছি এক রকম আরকি। আসা যায় তো। তৃতীয় তরুণ ছিলেন কিশোরগঞ্জে। কাজ করতেন একটি মিস্টির দোকানে। বাড়িতে এসেছেন ১৭ মার্চ। আসার সময় হবিগঞ্জে এক আত্মীয় বাড়িতে থেকে এসেছেন আরও দুইদিন। এখন বাড়িতেই আছেন। কোনো উপসর্গ নেই। তবে তিনি আক্রান্ত। হাট-বাজারে ঘুরেছেন অবাধে। এদিকে, সুনামগঞ্জে যে নারী আক্রান্ত হয়েছেন তিনি হাসপাতালে গিয়েছেন তার এক আত্মীয় রোগীকে নিয়ে। অনেকটা শখের বসে নমুনা দিয়েছিলেন। এক স্বাস্থ্যকর্মী জানালেন ওই নারী নাকি এখন বলছেন,‘আমি তো বাড়িত আছলাম। গ্রামও থাকি। একদিন খালি হাসপাতালও গেছলাম। আমার অইত খেনে?’’ অপরদিকে, দিরাই থেকে এক সাংবাদিক জানিয়েছেন, সুনামগঞ্জ জেলায় নতুন করে ৪ জনের করোনা পজেটিভ। তার মধ্যে জেলার দিরাই উপজেলায় এক যুবকের শরীরে করোনা ধরা পড়েছে। আক্রান্ত সেই যুবক উপজেলার চরনারচর ইউনিয়নের পেরুয়া গ্রামের বাসিন্দা। এলাকাবাসী জানিয়েছেন, রনিরা দুই ভাই ও এক বোন। রনি সবার ছোট। সপ্তাহখানেক আগে রনি কিশোরগঞ্জ থেকে বাড়ি আসে। তার শরীরে করোনাভাইরাস ধরার পড়ার পর তাকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা বলা হলেও সে সেই নির্দেশনা মেনে চলেনি। সে অবাদে চলাফেরা করছে। বন্ধুবান্ধবদের সাথে আড্ডা দিচ্ছে। শ্যামারচর বাজারে অবাধে ঘুরোঘুরি। তাছাড়া রনি যেখানে বসবাস করে পেরুয়া গ্রামের বাজার হাটি- সেখানে ঘনবসতি। ৫০/৬০ টি ঘর আছে আড়াআড়ি অবস্থায়। এমতাঅবস্থায় রনির মাধ্যমে ওই এলাকায় করোনা সংক্রমণের ভয়ে এলাকাবাসী আছেন চরম আতঙ্কে। শুধু সুনামগঞ্জই নয়, সিলেট বিভাগের অন্যান্য জেলাতেও আক্রান্তদের মধ্যে বেশিরভাগই ঘরে থাকছেন না বলে জানা গেছে। এতে সিলেটের সাধারণ মানুষের মাঝে দেখা দিয়েছে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা

নিউজ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

উপদেষ্টা মন্ডলী

কাউন্সিলর এডভোকেট ছালেহ আহমদ সেলিম,
এডভোকেট গিয়াস উদ্দিন আহমদ,
প্রভাষক ডাঃ আক্তার হোসেন,
প্রকাশনা ও সম্পাদক রেজওয়ান আহমদ,
প্রধান সম্পাদক কবি এম এইচ ইসলাম,
বার্তা সম্পাদক এমরান আহমদ,
ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আব্দুল আলী দেওয়ান আব্দুল্লাহ,
সহ ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আমির হোসেন,
সাহিত্য সম্পাদক কবি সোহেল রানা,
বিভাগীয় সম্পাদক আমিনুর ইসলাম দিদার

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com