1. abulkasem745@gmail.com : abulkasem745 :
  2. Amranahmod9852@gmail.com : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. Arafathussain736@gmail.com : Arafathussain736 :
  4. didar.kulaura@gmail.com : didarkulaura :
  5. Press.loskor@gmail.com : Press loskor : Press loskor
  6. Rezwanfaruki@gmail.Com : HolyBd24.com :
  7. Sohelrana9019@gmail.com : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. syedsumon22@yahoo.com : syed sumon : syed sumon
সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কোরবানপুর যুব সমাজের উদ্যোগে দেশের এবং প্রবাসীদের অর্থায়নে অবহেলিত রাস্তার আংশিক মেরামতের কাজ শুরু জন প্রশাসন সচিবের আশাশুনির বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন আইজিপি’র সাথে অ্যাটর্নি জেনারেলের সাক্ষাত সুসংগঠিত পাবনা সদর উপজেলা বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদঃ আলোচনা ও পরিচিতি সভা কোন অপশক্তির কাছে মাথা নত করবেন না: নিক্সন চৌধুরী ফেঞ্চুগঞ্জের ঘিলাছড়ার প্রতিটা পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন ইউপি চেয়ারম্যান হাজী লেইছ চৌধুরী দেশপ্রেম নিয়ে সাংবাদিকদের কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ৩৪তম স্প্যানে দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর ৫.১ কিলোমিটার শাশুড়ির শত কোটি টাকা আত্মসাৎ, স্ত্রীসহ আ.লীগ নেতা কারাগারে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড, আইনে পরিণত হচ্ছে অধ্যাদেশ রায়হান হ’ত্যার ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে মিথ্যা বানোয়াট কথা রটানো হচ্ছে

স্পেনে বাজারও নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না সরকার

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০
  • ১০ বার ভিউ

হলিবিডি ডেস্কঃঃ    স্পেনে ইতোমধ্যে নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে করোনাভাইরাস। মহামারী ঠেকাতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে দেশটির সরকার। কিন্তু এখন বাজারও নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না কর্তৃপক্ষ।

নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ও এর সরবরাহ ব্যবস্থা পুরোটাই এখন কালোবাজারিদের দখলে।সবকিছুর দাম আকাশছোঁয়া। বেশি টাকা দিয়েও মিলছে না সুরক্ষামূলক মাস্ক, গ্লাভস ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার।দেশজুড়ে লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যেও কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে বেশি বেশি লাভ করছে অসাধু ব্যবসায়ীরা। তাদের দৌরাত্ম্যে দিশেহারা সাধারণ মানুষ।তাদের ‘ডাকাত ও দস্যু’ বলে অভিহিত করছেন অনেকেই। বলছেন, দিন-দুপুরে ডাকাতি করছে ব্যবসায়ীরা।বিশ্বের করোনাপীড়িত দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বাজেভাবে আক্রান্ত স্পেন। সংক্রমণ ঠেকাতে দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে তালাবন্দি পুরো দেশ। সব রেস্তোরাঁ, বার, হোটেল ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

শুধু খাদ্যসামগ্রী ও ওষুধ কেনার জন্য সুযোগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া কর্মস্থল, হাসপাতাল এবং ব্যাংক যাতায়াত করার অনুমতিও রয়েছে। কিন্তু বাইরে গিয়েও খাবার ও জীবন রক্ষাকারী ওষুধ পাচ্ছে না সাধারণ মানুষ। পেলেও দাম আকাশচুম্বী। খেটে খাওয়া ও নিুআয়ের মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে।অবৈধ মজুদ গড়ে তুলেছে ব্যবসায়ীরা। গত সপ্তাহেই মাদ্রিদের একটি ফ্যাক্টরি থেকে দেড় লাখ মাস্ক উদ্ধার করে দেশটির পুলিশ বাহিনী। পরে সেগুলো সাধারণ মানুষের মাঝে বিলিয়ে দেয়া হয়।স্পেন বাসীর জন্য এটা নতুন অভিজ্ঞতাও বটে। যেমনটা বলছেন রাজধানী মাদ্রিদের কেন্দ্রীয় এলাকার ফার্মেসি মালিক আর্নেস্টো রুইজ লোপেজ। তিনি জানান, গত দুই সপ্তাহে তিনি যে পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন, তা জীবনেও দেখেননি।

তিনি বলেন, তার ফার্মেসিতে মাস্ক, গ্লাভস ও হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। সরবরাহকারীরা এগুলো আর দিচ্ছে না। উচ্চমূল্য দাবি করছে তারা।তিনি আরও জানান, উৎপাদক থেকে শুরু করে খুচরা বিক্রেতা পর্যন্ত পণ্য বাজারজাতকরণের প্রত্যেকটা ধাপেই অতিরিক্ত দাম বাড়ানো হয়েছে। লোপেজ জানান, উৎপাদক পর্যায়েই একটা মাস্কের দাম তিন থেকে চার গুণ বাড়ানো হয়েছে।হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় অন্যান্য জিনিসের দামও এক লাফে ২০ শতাংশ বেড়ে গেছে। এতে সবচেয়ে ভোগান্তির মুখে পড়েছে নিুআয়ের মানুষ। স্পেনে করোনাভাইরাসের মৃত্যুর সংখ্যা ইতালির থেকেও দ্রুত বাড়তে শুরু করেছে।

হাসপাতালে রোগীতে উপচে পড়া আইসিইউতে প্রাণ বাঁচাতে সর্বশক্তি নিয়ে যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসকরা। চিকিৎসকরা এই অভিজ্ঞতাকে হরর সিনেমার মতো ভয়াবহ বলে বর্ণনা করেছেন। রাজধানী মাদ্রিদ পরিণত হয়েছে করোনা সংক্রমণের নতুন উপকেন্দ্রে।শুধু এই এক শহরেই এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ১৫ হাজার মানুষ। মারা গেছে ২০০০ এর বেশি।

স্পেনের অন্য কোনো অঞ্চলে এত শোচনীয় হয়ে ওঠেনি। মার্চের মাঝামাঝি শহরে চলাচলে সর্বোচ্চ কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। কিন্তু নাটকীয়ভাবে আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার বেড়েই চলেছে।শনিবার একদিনেই দেশটিতে ৮ শতাধিক মানুষ করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন। ইতালি ও চীনেও এত দ্রুত মৃতের সংখ্যা বাড়েনি। ইতোমধ্যে চীনের থেকে বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন স্পেনে।একইসঙ্গে এত মানুষের মৃত্যুতে নতুন সংকট শুরু হয়েছে দেশটিতে। স্প্যানিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, সামরিক বাহিনীকে দিয়ে হাসপাতাল লাশ সরানোর কাজ শুরু হয়েছে। হাসপাতালগুলোতেও রোগীর সঙ্কুলান হচ্ছে না। একটি কংগ্রেস সেন্টারকে ইতোমধ্যে হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

নিউজ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

উপদেষ্টা মন্ডলী

কাউন্সিলর এডভোকেট ছালেহ আহমদ সেলিম,
এডভোকেট গিয়াস উদ্দিন আহমদ,
প্রভাষক ডাঃ আক্তার হোসেন,
প্রকাশনা ও সম্পাদক রেজওয়ান আহমদ,
প্রধান সম্পাদক কবি এম এইচ ইসলাম,
বার্তা সম্পাদক এমরান আহমদ,
ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আব্দুল আলী দেওয়ান আব্দুল্লাহ,
সহ ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আমির হোসেন,
সাহিত্য সম্পাদক কবি সোহেল রানা,
বিভাগীয় সম্পাদক আমিনুর ইসলাম দিদার

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com