1. abulkasem745@gmail.com : abulkasem745 :
  2. Amranahmod9852@gmail.com : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. Arafathussain736@gmail.com : Arafathussain736 :
  4. didar.kulaura@gmail.com : didarkulaura :
  5. Press.loskor@gmail.com : Press loskor : Press loskor
  6. Rezwanfaruki@gmail.Com : HolyBd24.com :
  7. Sohelrana9019@gmail.com : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. syedsumon22@yahoo.com : syed sumon : syed sumon
মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কোরবানপুর যুব সমাজের উদ্যোগে দেশের এবং প্রবাসীদের অর্থায়নে অবহেলিত রাস্তার আংশিক মেরামতের কাজ শুরু ফেঞ্চুগঞ্জে  সিএনজি চালিত অটোরিকশা উল্টে গোলাপগঞ্জের একজন নিহত    স্কুল-কলেজ খোলার চিন্তা করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ, ১০ মাস পর যুবক গ্রেফতার তাহিরপুরে ইএলজি প্রকল্পের ষান্মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার আত্মহত্যাই বলে দিল মর্জিনার সব কুকীর্তি বিদ্যুৎ বিভাগের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রশাসক সুজন অযোগ্য ও কাজে অবহেলাকারীর স্থান নেই খুলনায় পেঁয়াজের দাম লাগামহীন ডিবির ওসি ইয়াছিন আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে মাদক বিরোধী অভিযান : ২০০ বোতল ফেন্সিডিল সহ রেজাউল আটক জি-বাংলায় ‘রোগ-মুক্তির’ বিজ্ঞাপন দেখে খোয়া গেল ৫৮ লাখ টাকা ফেঞ্চুগঞ্জে ট্রেন লাইনচ্যুত, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন সিলেটে

মিয়ানমারের সামরিক আউটপোস্টে আরাকান আর্মির হামলা: খালি হয়ে গেছে ২০টি গ্রাম

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২০ মার্চ, ২০২০
  • ৩ বার ভিউ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: মিয়ানমারের সামরিক আউটপোস্টে আরাকান আর্মির হামলা: খালি হয়ে গেছে ২০টি গ্রাম। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের কিয়াউকতাও ও চিন রাজ্যের পালেতওয়ার মধ্যবর্তী সীমান্তে কালাদান নদীর পূর্ব পাড়ে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী আর আরাকান আর্মির (এএ) মধ্যে মাসব্যাপী যে যুদ্ধ চলছে, সেই যুদ্ধের কারণে ওই অঞ্চলের প্রায় ২০টি গ্রাম মানুষশূণ্য হয়ে পড়েছে।

মন্ট থান পাইন গ্রামের প্রশাসক ইরাবতীকে বলেন, “আমাদের গ্রামকে ছাই করে দেয়া হয়েছে। বেশ কয়েকদিন আগেই সবগুলো ঘর পুড়িয়ে দেয়া হযেছে। আর গতকালে গ্রামের উপাসনালয়ের উপর আর্টিলারি শেল পড়েছে”।

তিনি আরও বলেন, “কালাদান নদীর পাড়ে যারা বাস করেন, তারা সবাই হয় পালেতওয়া অথবা কিয়াউকতাউতে পালিয়ে গেছে। এখনও প্রবল যুদ্ধ হচ্ছে। ফিরে যাওয়ার মতো কোন ঘর আর আমাদের নেই। এমনকি উপাসনার জায়গাটাও আমাদের শেষ হয়ে গেছে”।

কালাদান নদীর পূর্ব পাড়ের সাতটি গ্রাম এবং পশ্চিম পাড়ের ১১টি গ্রাম জনশূণ্য হয়ে গেছে। ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে এই লড়াই চলছে। পালেতওয়া টাউনশিপের মিওয়া পাহাড়চূড়ার সামরিক বাহিনীর আউটপোস্টকে ঘিরে এই যুদ্ধ চলছে। আরাকান আর্মি এই আউটপোস্টটির নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করেছিল বলে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে।

মন্ট থান পাইন, পিয়াইং তাইন এবং কিয়াউ শি পাইন গ্রামগুলোতে শেল নিক্ষেপ করা হয়েছে। শেলের আঘাতে বেশ কিছু গ্রামবাসী হতাহত হয়েছে বলে গ্রামবাসীরা জানিয়েছে।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মন্ট থান পাইন গ্রাম। শেলের আঘাতে গ্রামের ৬৬টি বাড়ির সবগুলো গুড়িয়ে গেছে। বহু গবাদি পশুও এতে মারা পড়েছে।

রাখাইন রাজ্যের কিয়াউকতাউ এলাকার এমপি উ মাউং মাউং দ্য ইরাবতীকে বলেন যে, “বহু মানুষ শহর এলাকায় পালিয়ে গেছে। শহরের মানুষ শেলের শব্দ সহ্য করতে পারছে না”।

কালাদান নদীর পূর্ব পাড়ে তিন মা গ্রামের কাছে বৃহস্পতিবার দুটো জঙ্গি বিমান নিয়ে হামলা করে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। গ্রামের এক বৌদ্ধ ভীক্ষু এ তথ্য জানান।

ওই ভীক্ষু দ্য ইরাবতীকে বৃহস্পতিবার বলেন, “আমাদের গ্রামের কাছে প্রায় প্রতিদিনই লড়াই হচ্ছে। আজ সামরিক বাহিনী দুটো জঙ্গি বিমান নিয়ে হামলা করেছে। গ্রামের বাইরে পাহাড়ের উপর সামরিক বাহিনী অবস্থান নিয়েছে। তারা শেলও নিক্ষেপ করেছে। ভারী বন্দুকের শব্দ সহ্য করতে না পেরে, আমি মঠ বন্ধ করে চলে এসেছি”।

সামরিক বাহিনী এবং আরাকান আর্মি উভয়েই নিশ্চিত করেছে যে, আরাকান আর্মির যোদ্ধা আর ৭ নং লাইট ইনফ্যান্ট্রি ব্যাটালিয়নের মধ্যে লড়াই হয়েছে।

নিউজ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

উপদেষ্টা মন্ডলী

কাউন্সিলর এডভোকেট ছালেহ আহমদ সেলিম,
এডভোকেট গিয়াস উদ্দিন আহমদ,
প্রভাষক ডাঃ আক্তার হোসেন,
প্রকাশনা ও সম্পাদক রেজওয়ান আহমদ,
প্রধান সম্পাদক কবি এম এইচ ইসলাম,
বার্তা সম্পাদক এমরান আহমদ,
ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আব্দুল আলী দেওয়ান আব্দুল্লাহ,
সহ ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আমির হোসেন,
সাহিত্য সম্পাদক কবি সোহেল রানা,
বিভাগীয় সম্পাদক আমিনুর ইসলাম দিদার

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com