1. [email protected] : abulkasem745 :
  2. [email protected] : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. [email protected] : Arafathussain736 :
  4. [email protected] : didarkulaura :
  5. [email protected] : Press loskor : Press loskor
  6. [email protected] : HolyBd24.com :
  7. [email protected] : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. [email protected] : syed sumon : syed sumon
রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ০৯:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কোরবানপুর যুব সমাজের উদ্যোগে দেশের এবং প্রবাসীদের অর্থায়নে অবহেলিত রাস্তার আংশিক মেরামতের কাজ শুরু তরুণীকে উত্ত্যক্তের বিচার চাওয়ায়, বখাটেদের হামলায় যুবকের মৃত্যু বস্তার দোকানের আড়ালে মাদক কারবার, ১২ মামলার আসামি আটক রাজধানীতে যুবলীগ নেতাকে গুলি, ঢামেকে ভর্তি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল ২৯ মে পর্যন্ত আল-আকসা মসজিদে হামলায় নিন্দা জানিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে মুক্ত স্কাউট গ্রুপের সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের সাথে ঈদ উদযাপন বাবাকে হত্যার কথা আদালতে স্বীকার করলেন চৌগাছার সোহান রাজবাড়ীতে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন ঈদের পরদিনই শিমুলিয়া ঘাটে কর্মস্থলে ফিরতে দক্ষিণবঙ্গের যাত্রীদের চাপ ২০২১ সালের প্রথম ‘ব্লাড মুন’ চন্দ্রগ্রহণ ২৬ মে

করোনা ভাইরাসে নয়+কিস্তির জ্বালায় মরবে নিরিহ ঋণ গ্রহীতা মানুষ

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২০ মার্চ, ২০২০
  • ৩১ বার ভিউ

এমরান আহমেদ :: দোকানপাট – কলকারখানা -গার্মেন্টস বন্ধ করার আগে বিভিন্ন এনজিও সংস্থার কিস্তি আপাতত বন্ধ করার পদক্ষেপ নিন। না হলে নিরিহ ঋণ গ্রহীতা মানুষ করোনায় নয়+কিস্তির জ্বালায় মরবে। যেমন ব্রাক ব্যাংক, গ্রামিন ব্যাংক সহ প্রবাসী ঋণ সংস্থা ব্যাংক সহ নাম না জানা অসংখ্য ঋণ সংস্থা ব্যাংক রয়েছে অনেকে ঋণ তুলে দোকানপাট দিয়েছে আবার অনেক কলকারখানা ও গার্মেন্টস কর্মীরা ঋণ তুলে ছেলে-মেয়েদের বিয়ে দিয়েছেন আবার অনেকে পরিবারের কাজে লাগিয়েছে আর কলকারখানা ও গার্মেন্টসে কাজ করে মাস শেষে বেতন পেয়ে তারা কিস্তি দিচ্ছে আবার পরিবারের খরচের টাকাও দিতে হচ্ছে আর এখন যদি কলকারখানা ও গার্মেন্টস বন্ধ হয়ে যায় তাহলে তারা একেবারে বিপদে পড়ে যাবে যেমন মরার উপরে খড়ার ঘা।
অন্যদিকে অনেক প্রবাসীরা ব্যাংক থেকে ঋণ তুলে অনেকে আবার বাড়ি বন্ধক রেখে প্রবাসে পাড়ি দিয়েছেন পরিবারের অসচ্ছলতা দুর করতে, পারিবারের সদস্যদের মুখে এক মুঠো ভাত তুলে দিতে কিন্তু বর্তমানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অথবা অনেকে করোনা ভাইরাসের ভয়ে বাহিরে কাজেও যেতে পারছেননা আছেন গৃহবন্দী হয়ে আর কাজে না গেলেও মাস শেষে টাকাও দেশে পাঠাতে পারবেননা আর মাস শেষে এনজিও সংস্থার মাসিক কিস্তির টাকা না দিতে পারলে সংস্থা পক্ষের চাপের মুখে এবং পরিবারের অভাবের তাড়নায় চিন্তিত হয়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাবার আগে কিস্তির টাকা কিভাবে দিবে সেই চিন্তায় অনেক স্ট্রোক করে মারা যাবে।
তাই এই মহামারি রোগ করোনা ভাইরাস যতদিন বিরাজ করছে ঠিক ততদিন কিস্তি বন্ধ করার কোন সুজুগ তাকলে অন্ততপক্ষে এই ঋণ গ্রহীতা মানুষ একটু চিন্তা মুক্ত থাকতে পারতো।

.
লেখক সাংবাদিক এমরান আহমেদ।

 

 

____________________________________

এই লেখার বিষয়বস্তু একান্তই লেখকের নিজস্ব। এই লেখার সাথে সম্পাদকীয় নীতির কোন মিল নেই। এই লিখনি বিষয়বস্তুর জন্য হলিবিডি কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

নিউজ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

উপদেষ্টা মন্ডলী

কাউন্সিলর এডভোকেট ছালেহ আহমদ সেলিম,
এডভোকেট গিয়াস উদ্দিন আহমদ,
প্রভাষক ডাঃ আক্তার হোসেন,
প্রকাশনা ও সম্পাদক রেজওয়ান আহমদ,
প্রধান সম্পাদক কবি এম এইচ ইসলাম,
বার্তা সম্পাদক এমরান আহমদ,
ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আব্দুল আলী দেওয়ান আব্দুল্লাহ,
সহ ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আমির হোসেন,
সাহিত্য সম্পাদক কবি সোহেল রানা,
বিভাগীয় সম্পাদক আমিনুর ইসলাম দিদার

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com