1. [email protected] : abulkasem745 :
  2. [email protected] : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. [email protected] : Arafathussain736 :
  4. [email protected] : didarkulaura :
  5. [email protected] : Press loskor : Press loskor
  6. [email protected] : HolyBd24.com :
  7. [email protected] : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. [email protected] : syed sumon : syed sumon
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ন

যশোর-খুলনা ও বেনাপোল মহাসড়কের উন্নয়ন কাজ দেড় বছরে এগিয়েছে ৮০ ও ৬৫ ভাগ

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : রবিবার, ৮ মার্চ, ২০২০
  • ২৮ বার ভিউ

হলিবিডি প্রতিনিধিঃ দেশব্যাপী আলোচিত সড়কে পরিণত হয়েছে যশোর-খুলনা ও বেনাপোল মহাসড়ক। কেন না খোদ ঢাকা থেকে উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ দু’টি প্রকল্প তদারকি করছেন। গত দেড় বছরে এ সড়ক দু’টির উন্নয়নের কাজ এগিয়েছে ৮০ ভাগ ও ৬৫ ভাগ। প্রায় ৭শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে সড়ক দু’টির উন্নয়নের কাজ এগিয়ে চলছে। তবে সড়ক দু’টিতে কাক্সিক্ষত মানের কাজ হচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে।
সূত্র জানায়, যশোর-খুলনা মহাসড়কের ৩৮ কিলোমিটার উন্নয়নে ৩৫৮ কোটি টাকা ও যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের ৩৮ কিলেমিটার উন্নয়নে ৩২৮ কোটি টাকা সরকার বরাদ্দ দেয়। দু’টি সড়কই নতুন করে ডাবল লেনে উন্নীত হচ্ছে। যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের তদারকিতে গোটা উন্নয়ন কর্মকান্ড চলছে। গত ২০১৮ সালের ১৭ অক্টোবর বেনাপোল সড়কের কাজের ওয়ার্ক অর্ডার দেয় সড়ক বিভাগ। এর আগে একই বছরের ১৮ মার্চ খুলনা সড়ক উন্নয়ন কাজের ওয়ার্ক অর্ডার দেয়া হয়। দু’টি সড়কের কাজ সমাপ্তির সময়সীমা নির্ধারণ করা হয় গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর। এরপর থেকেই সহাসড়ক দু’টির উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। যশোরের আলোচিত এ দু’টি মহাসড়ক উন্নয়নের কাজ করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম ও খুলনার তাহের এন্ড ব্রাদার্স, মাহবুব এন্ড ব্রাদার্স ও তমা কনস্ট্রাশন এন্ড কোং।
কাজের শুরু থেকেই মহাসড়ক দু’টির পাশে বসবাসকারী ও ব্যবসায়ীদের অভিযোগ সড়ক উন্নয়ন কাজ চলছে কচ্ছপ গতিতে। একই সাথে দরপত্রের কোন নিয়ম মানছেন না ঠিকাদারা। তারা ইচ্ছামত তাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। সড়ক দু’টির গর্ত করা থেকে শুরু করে পুরনো ইটের খোয়া, পাথর ও নিম্নমানের বালু ব্যবহার করা হচ্ছে। একই সাথে সড়কের নির্ধারিত উচ্চতার চাইতে প্রায় দুই ফুট উঁচু করা হয়েছে। যা নিয়ে সড়কের পার্শ্ববর্তী এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভ রয়েছে। তারা বলেছেন, সড়কটি উঁচু হওয়ার কারণে পার্শ্ববর্তী সংযোগ সড়ক থেকে মূল সড়কে উঠতে যানবাহনসহ রিকশা-ভ্যান চালকদের ভীষণ সমস্যা হচ্ছে। আর সড়কের পাশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছে। সড়ক উঁচু হবার কারণে এসব ব্যবসায়ীদের দোকানপাট দুই ফুট নীচে নেমে গেছে। এ কারণে সড়কের পানি দোকানে ঢুকছে ও পাশে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে। অথচ এ কাজের ওয়ার্ক অর্ডারে সড়কটি এতো উঁচু করার কোন নিদের্শনা ছিল না বলে শহরতলীর রাজারহাট এলাকার কয়েকজন ব্যবসায়ী জানিয়েছেন।
এদিকে, গত বছরের ৩ সেপ্টেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিত একনেকের বৈঠকে যশোর-বেনাপোল ও খুলনা মহাসড়ক আলোচ্য সূচিতে আসে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সড়ক দু’টির কাজ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন ও কাজের দীর্ঘসূত্রিতা এবং অগ্রগতি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এ কারণে যশোর-বেনাপোল ও খুলনা সড়কের উন্নয়ন কাজ দেশের আলোচিত বিষয়ে উঠে আসে। এরপর যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগে ঢাকা থেকে উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা দফায় দফায় ফোনে কাজের অগ্রগতি নিয়ে তদারকি করতে থাকেন। যা এখনও অব্যাহত রয়েছে। এ সড়ক দু’টির কাজ নিয়ে যশোরের কর্মকর্তাদের জবাবদিহির আওতায় আনা হচ্ছে। কর্মকর্তাদের ঢাকায় ডেকে নিয়ে এ বিষয়ে সকল নিদের্শনা দেয়া ও তদারকি করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এস এম মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, যশোরের প্রধান দু’টি মহাসড়কের দেড় বছর মেয়াদী উন্নয়ন কাজ শেষ হবার সময় ছিল ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর। সেটি আগামী জুন মাস পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। ঠিকাদার এ দু’টি সড়কের কাজ শেষ করতে খুব বেশী পিছিয়ে নেই। তিনি বলেন, যশোর-খুলনা মহাসড়কের কাজ ৮০ ভাগ এগিয়েছে, আর বেনাপোল সড়কের কাজ এগিয়েছে ৬৫ ভাগ। কোন দুর্যোগ না ঘটলে চলতি বছরের জুন মাসের মধ্যে এ দু’টি প্রকল্পের কাজ শেষ হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
উল্লেখ্য, খুলনা মহাসড়কটি শহরতলীর পালবাড়ি মোড় থেকে শুরু হয়ে অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়ার রাজঘাট পর্যন্ত নতুন করে নির্মিত হচ্ছে। আর বেনাপোল মহাসড়কটি শহরের দড়াটানা মোড়ের মুজিব সড়ক থেকে শুরু হয়ে বেনাপোল চেকপোস্ট নোম্যন্স ল্যান্ড পর্যন্ত হবে। দু’টি সড়কই দু’পাশে ৫ ফুট করে বাড়িয়ে ২৪ ফুটের স্থলে ৩৪ ফুট করা হচ্ছে। আর ৩৮ কিলোমিটার করে দু’টি সড়কের মোট ৭৬ কিলোমিটার ডাবল লেনের উন্নয়নে ব্যয় হচ্ছে ৬৮৬ কোটি টাকা।

নিউজ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

উপদেষ্টা মন্ডলী

কাউন্সিলর এডভোকেট ছালেহ আহমদ সেলিম,
এডভোকেট গিয়াস উদ্দিন আহমদ,
প্রভাষক ডাঃ আক্তার হোসেন,
প্রকাশনা ও সম্পাদক রেজওয়ান আহমদ,
প্রধান সম্পাদক কবি এম এইচ ইসলাম,
বার্তা সম্পাদক এমরান আহমদ,
ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আব্দুল আলী দেওয়ান আব্দুল্লাহ,
সহ ব্যবস্হাপনা সম্পাদক আমির হোসেন,
সাহিত্য সম্পাদক কবি সোহেল রানা,
বিভাগীয় সম্পাদক আমিনুর ইসলাম দিদার

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com