Sun. Feb 23rd, 2020

Holybd24.com

Online News Paper

মেহেরপুরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ অনুষ্ঠিত

এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধিঃ সারা দেশের ন্যায় মেহেরপুরেও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২৫জানুয়ারি-২০২০ইং) সরেজমিনে গিয়ে জানতে পারি- মেহেরপুর সদর উপজেলা ২নং বুড়িপোতা ইউনিয়নের কামদেবপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ১নং কুতুবপুর ইউনিয়নের উজলপুরস্থ ভৈরব মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় এবং গাংনী উপজেলার চিৎলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ এর সকল ভোটাররা আনন্দঘন সময় সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বিরতিহীন তাদের মূল্যবান ভোট প্রদাণ করে থাকে।

কামদেবপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তথ্যমতে শিক্ষক মন্ডলিদের সহযোগীতায়- প্রধান নির্বাচন কমিশনার (১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী) মোঃ শিমুল, সহকারি নির্বাচন কমিশনার মোছাঃ তাসনিম আক্তার, মোঃ রাকিবুল ইসলাম।

প্রিজাইডিং অফিসার ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার মোঃ ইমতিয়াজ রহমান, মোছাঃ লাবনী খাতুন, মোঃ ইসরাইল হোসেন, মোছাঃ আইরিন অনামিকা মেধা; এদের নেতৃত্বে সকল শিক্ষর্থী সুশৃঙ্খল পরিবেশে ভোট প্রদান করে থাকে। কামদেবপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মোট ভোটার সংখ্যা ৩৬০ জন, ছেলে-১৮৪ জন, মেয়ে- ১৭৬ জন।

স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ আটটি পদে পাঁচ শ্রেণি হতে অংশ গ্রহণ করে-১৫জন শিক্ষার্থী। স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ এ বিজয় লাভ করে ৮জন শিক্ষার্থী তারা হলো- মোঃ রাব্বি হোসেন, মোছাঃ আঁখি আলমগীর, মোঃ রহিম, মোঃ নয়ন, এস এম জুনাঈদ হোসেন, মোঃ মুন্না, মোছাঃ নিশাত তানজিমা, মোঃ স্বাধীন হোসেন। স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে- মরিউম খাতুন, রোকসানা আক্তার রিক্তা, মোঃ মুরজ আলী, রনি আহম্মেদ, মোঃ সাব্বির হোসেন, মেহেজাবিন আক্তার, সাবিনা খাতুন।

ভৈরব মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের তথ্যমতে জানতে পারি শিক্ষকদের সহযোগীতায়- প্রধান নির্বাচন কমিশনার (১০ম শ্রেণির ছাত্রী) মোছাঃ মিলি খাতুন, সহকারি নির্বাচন কমিশনার, মোছাঃ সেলিনা খাতুন, মোছাঃ গুলশান নাহার।

প্রিজাইডিং অফিসার, মোছাঃ কামিনি খাতুন (১০ম শ্রেণি) এদের নেতৃত্বে সকল শিক্ষর্থী সুশৃঙ্খল পরিবেশে ভোট প্রদান করে থাকে। ভৈরব মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের মোট ভোটার সংখ্যা- ৩৫১জন। স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ আটটি পদে পাঁচ শ্রেণি হতে অংশ গ্রহণ করে- ১৫জন শিক্ষার্থী।

স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ এ বিজয় লাভ করে ৮জন শিক্ষার্থী তারা হলো- মোছাঃ তাবাচ্ছুম আক্তার, মোছাঃ খুশি খাতুন, মোছাঃ বৃষ্টি খাতুন, মোছাঃ জিনিয়া, মোছাঃ মারিয়া সুলতানা, মোছাঃ ইতি খাতুন, মোছাঃ তাসলিমা খাতুন, মোছাঃ রিয়া খাতুন।

স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে- যুথি আক্তার, সৌরভী আক্তার, আঞ্জুমান আক্তার, সানজিদা, সুমনা আক্তার, মলি আক্তার, রুমিয়া খাতুন। অপরদিকে আরোও জানা গেছে- মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার চিৎলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের সহযোগীতায়- প্রধান নির্বাচন কমিশনার (১০ম শ্রেণীর ছাত্রী) মোছাঃ সাবিহা আফরিন ও প্রিজাইডিং অফিসার শারমিন আক্তার মুন্নির নেতৃত্বে স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ সকল ভোটাররা আনন্দঘন সময়ে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত তাদের মূল্যবান ভোট প্রদান করে থাকে।

চিৎলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মোট ভোটার সংখ্যা- ৩৬২জন, ছেলে- ২০০জন, মেয়ে- ১৬২জন। স্টুডেন্টস কেবিনেটে-২০২০ আটটি পদে পাঁচ শ্রেণি থেকে অংশ গ্রহণ করে- ২৫জন শিক্ষার্থী। স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন-২০২০ এ বিজয় লাভ করে ৮জন শিক্ষার্থী তারা হলো- কৌশিক আহমেদ কাফি, আবির হাসান, মুবিন ইসলাম, সোহানুর আহমেদ, আশিকুর রহমান, সোহেল রানা, রিয়াজ উদ্দিন, তানভীর হাসান।

স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে- হুসাইন কিবরিয়া, চন্দ্র সরকার, ছুম্মা আক্তার, জামেলা আক্তার, মিমাংসা খাতুন, মেহেবুবা পারভীন, মাজিদুল ইসলাম, মেরিনা খাতুন, মায়া এ্যাসেনসন, রোকন আলী, রতিবুজ্জামান, রিনা খাতুন, সূচি মন্ডল, সাজিদুর রাব্বি প্রান্ত, সানথিয়া সরকার, সুরুজ হোসেন, হাসিনা আক্তার।

যথা সময়ের মধ্যে কেবিনেটদের বিদ্যালয়ের উন্নয়নে শিক্ষকদের সহযোগীতায় প্রত্যেক বিজয়ীকে তাদের কর্মপরিধির দায়িত্ব বুঝিয়ে দেওয়া হবে। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত স্টুডেন্টস ক্যাবিনেটের কর্মপরিধিতে যা আছে তা হলঃ ১। পরিবেশ সংরক্ষণ, ২। পুস্তক ও শিক্ষাসামগ্রী, ৩। স্বাস্থ্য, ৪। ক্রীড়া ও সংস্কৃতি, ৫। পানি সম্পদ, ৬। বৃক্ষরোপণ ও বাগান তৈরি দিবস পালন ও অনুষ্ঠান সম্পাদন, ৭। অভ্যর্থনা ও আপ্যায়ন এবং ৮। আইসিটি। চিৎলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আক্কাচ আলী অনলাইন নিউজ পোর্টাল “হলিবিডি২৪ ডটকম” কে জানান- কৈশোর থেকে গণতন্ত্রের চর্চা, অন্যের মতামতের প্রতি সহিষ্ণুতা এবং শ্রদ্ধা, শিক্ষকদের সহায়তা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিবেশ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ এছাড়াও ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও সহশিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করাই হচ্ছে সারাদেশে ছাত্র কেবিনেট নির্বাচনের উদ্দেশ্য। রাজনীতির চর্চা মানে তো আসলেই গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের চর্চা, অন্যের মতামতকে মূল্যায়ন করার শিক্ষা লাভ করা, আত্ম ও মনোবিকাশের চর্চা করা। এই চর্চার মাধ্যমেই দেশ ও জাতির উন্নয়ন করা সম্ভব।