Sun. Feb 23rd, 2020

Holybd24.com

Online News Paper

মতলব দক্ষিনে ডাকাতি করার সময় ডাকাত গ্রেপ্তার ও চাঁদপুর জেলা আদালতে প্রেরন

চাঁদপুর প্রতিনিধি :: গত কয়েকমাস যাবত নানাহ প্রকার চুরি, ডাকাতি ও নানা ধরনের অঘটনের জন্য মতলব দক্ষিনে ক্ষোভ ও নিরাপত্তা হীনতা বিরাজ করছে এসব রাত্রি কালিন চোর ও ডাকাতদের কারনে।

গরু চুরি, গাড়ি চুরি, গ্যারেজ থেকে গাড়ির মুল্যবান ব্যাটারি চুরিসহ অনেক অপকর্ম মুলক কাজ কর্ম সংঘঠিত হয়ে আসছে মাসের পর মাস। যার ফলে আইন সহায়তাকারি পুলিশ সদস্যরাও কড়া মহরা দিয়ে আসছে জনগনের নিরাপত্তার জন্য। কিন্তু এসব চোর বা ডাকাতরা সুচতুর ভাবে কাজ করে আসছে যার ফলে তারা ধরা ছোয়ার বাইরে ছিল দিনের পর দিন এমনকি মাসের পর মাস।

এদিকে মতলব দক্ষিন থানা পুলিশের প্রতিদিনের ন্যায় রাত্রি কালিন টহলদান কালে ২১/০১/২০২০ ইং তারিখের দিবাগত গভীর রাতে মতলব দক্ষিন থানাধীন পয়ালী গ্রামস্থ্য মতলব টু কাশিমপুর রোডের বন্দে আলী মিয়ার বাড়ীর সামনে পাকা রাস্তার উপর রাত্রীবেলা হটাৎ করে নজর পরে একটি পিকাপ থামানো (ডাকাতির প্রস্তুতি চলাকালিন) অবস্থায় কয়েকজন ব্যক্তি সন্দেহাতিত ভাবে নড়া চড়া করছে তাদের প্রশ্ন করলে উত্তরের ধরন ও সাথে থাকা তালা ভাঙ্গার ও সাটার খোলার মত অস্ত্র বা নানা রকম লোহার হাতিয়ার দেখে সন্দেহ হয়।

এতে করে মতলব দক্ষিন থানার অফিসার ইনচার্জ সাহেবের নির্দেশ ক্রমে এস.আই ফরিদ হোসেন, সঙ্গীয় ফোর্সসহ ২জনকে দ্রুত গ্রেপ্তার করা হয়, আসামীঃ ১। মোঃ কবির পালোয়ান (৪৩) পিতা-আঃ সামেদ পালোয়ান সাং-পাটুয়া, থানা-কলাপাড়া, জেলা-পটুয়াখালী, বর্তমানে সাং-তল্লা, বড় মসজিদ দারোগা বাড়ী, থানা+জেলা-নারায়নগঞ্জ ২। মোঃ পলাশ মিয়া (৩১) পিতা-জয়নাল আবেদীন সাং-ডিয়ারপাড়, থানা-ইটনা, জেলা-কিশোরগঞ্জদ্বয়কে গ্রেফতার করেন। পরে নিয়মিত মামলা রুজু করে গতকাল ২৪/০১/২০২০ইং তারিখে বিজ্ঞ আদালতে সোর্পদ করা হয়।

আসামিদেরকে দেখার জন্য মতলবের অনেক গাড়ি মালিকরা ও যাদের গাড়ি চুড়ি ও গ্যারেজে ডাকাতি হয়েছে তারা উপস্থিত হন। তাদের মধ্যে মোঃ শাহাজানের ঢাকিরগাঁও কাজলি সিনেমার কাছে চাঁদপুর টু নারায়নপুর সড়ক থেকে একটি গাড়ি ও কয়েকটি ব্যাটারি গত সোমবার রাতে চুরি হয় এবং মতলব পাইপাশ সড়কের সামনে দিয়ে একটি পিকাপ যাওয়ার সময় বাইপাশ চৌড়াস্তার টমটম গ্যারেজ মালিক মোঃ রহিম গাজি দেখে ফেলে এবং গাড়িটি পুনরায় ব্যাক করে তাকে রাস্তায় দাড়ানো দেখে অতি দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। কিন্তু তিনি পরে বুঝতে পারেন তারা চুরি করে পালাচ্ছেন।

তাই সকল ড্রাইভার ও গাড়ি মালিকদের দাবি এরাই সেই চুরির হোতা এবং তারা অনেক বড় গ্রুপ নিয়ে কাজ করে তাই তাদের দাবি, এদের মাধ্যমে যেন পুরো চক্রটিকে ধরে আইনের মাধ্যমে বিচারের আওতায় এনে এসব অপরাধ ও গরীব মানুষদের ওপর সংঘঠিত ডাকাতি কর্মকান্ড মুলক অপরাধ দমন করা হয়।