1. abulkasem745@gmail.com : abulkasem745 :
  2. Amranahmod9852@gmail.com : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. Arafathussain736@gmail.com : Arafathussain736 :
  4. didar.kulaura@gmail.com : didarkulaura :
  5. Press.loskor@gmail.com : Press loskor : Press loskor
  6. Rezwanfaruki@gmail.Com : HolyBd24.com :
  7. Sohelrana9019@gmail.com : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. syedsumon22@yahoo.com : syed sumon : syed sumon
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কোরবানপুর যুব সমাজের উদ্যোগে দেশের এবং প্রবাসীদের অর্থায়নে অবহেলিত রাস্তার আংশিক মেরামতের কাজ শুরু ঘিলাছড়া মোকামের তল খেলোয়াড় কল্যাণ সংস্থার ফাইনাল খেলায় বিজয়ী সুনার বাংলা একাদশ সামছুল ইসলাম লস্করের ইংরেজি নববর্ষের শুভেচ্ছা মির্জাপুরস্থ বিছালী ইউনিয়ন ভূমি অফিস স্থানান্তর নিয়ে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ফুঁসে উঠছে আপমর জনসাধারণ জনপ্রতিনিধি-কে সর্বশ্রেষ্ঠ জনসেবক হতে হবে ফেঞ্চুগঞ্জের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুইলক্ষ টাকার চেক দিলেন ব্যারিস্টার মোস্তাকিম রাজা চৌধুরী  ক্ষমতার অপব্যবহার করায় চেয়ারম্যান আহমদ জিলুর বিরুদ্ধে দশজন মেম্বারের অভিযোগ। “আজকের মেহেরপুর” প্রতিনিধিদের পরিচয়পত্র প্রদান রেজিস্ট্রেশন ও ডাক্তার পদবীর দাবীতে উত্তাল হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় শাহজালাল উপশহর সিল আপ গ্রুপের কমিটি গঠন অনুষ্ঠিত হয় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার দাবিতে মেহেরপুর জেলা বিএনপি’র গণ-অনশন

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে মিয়ানমারের সাথে আলোচনায় চীনা প্রেসিডেন্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া এবং রাখাইন রাজ্য থেকে বাস্তুচ্যুতদের পুনর্বাসনের ক্ষেত্রে মিয়ানমারকে তার সামর্থ্যের অনুযায়ী আরও সহায়তা প্রদানের সদিচ্ছার কথা পুনরায় ব্যক্ত করেছেন চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিনপিং।

রোববার মিয়ানমারে চীনের প্রেসিডেন্টের দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফর শেষে জারি করা এক বিবৃতিতে এ কথা উল্লেখ করা হয়েছে। চীনের প্রেসিডেন্টের এ সফরে চীন-মিয়ানমারের মধ্যে বেশ কিছু চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাখাইনের রাজ্যের সকল সম্প্রদায়ের জন্য মানবিক পরিস্থিতি, শান্তি, স্থিতিশীলতা ও উন্নয়ন প্রচেষ্টা বজায় রাখতে চীন মিয়ানমারের পাশে থাকবে।

তাদের দেয়া যৌথ এক বিবৃতি অনুসারে, মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে হওয়া দ্বিপাক্ষিক চুক্তির ভিত্তিতে যাচাইয়ের মাধ্যমে বাস্তুচ্যুতদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়টি পুনর্ব্যক্ত করেছে মিয়ানমার।

বিদ্যমান সমস্যাটির জটিলতা বোঝার জন্য এবং মিয়ানমারকে দেয়া সকল সহায়তার জন্য চীনকে ধন্যবাদ জানিয়েছে মিয়ানমার।

২০১৭ সালের ২৩ নভেম্বর বাংলাদেশ ও মিয়ানমার একটি প্রত্যাবাসন চুক্তিতে স্বাক্ষর করে।

প্রত্যাবসান প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করতে ২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারি বাংলাদেশ-মিয়ানমার ‘ফিজিক্যাল অ্যারেঞ্জম্যান্ট’ বিষয়ক একটি চুক্তি সই করে।

চুক্তি অনুযায়ী, প্রত্যাবাসন আরম্ভ হওয়া থেকে শুরু করে পরবর্তী দুই বছরের মধ্যে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে।

সকল ধরনের প্রস্তুতি থাকা সত্ত্বেও, গত বছরের ২২ আগস্ট কোনো রোহিঙ্গা ‘স্বেচ্ছায়’ প্রত্যাবাসন করতে রাজি হয়নি। ফলে ওইদিন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রক্রিয়াটি স্থগিত করতে বাধ্য হতে হয়।

২০১৮ সালের ১৫ নভেম্বর রোহিঙ্গাদের প্রথম দলটি মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার কথা থাকলেও ‘সহায়ক পরিবেশের অভাবে’ রোহিঙ্গারা রাখাইন রাজ্যে ফিরে যেতে রাজি না হওয়ায় সে যাত্রায়ও কাউকে পাঠানো যায়নি। ইউএনবি।

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com