1. [email protected] : abulkasem745 :
  2. [email protected] : Amranahmod Amranahmod : Amranahmod Amranahmod
  3. [email protected] : Arafathussain736 :
  4. [email protected] : didarkulaura :
  5. [email protected] : Press loskor : Press loskor
  6. [email protected] : HolyBd24.com :
  7. [email protected] : M Sohel Rana : M Sohel Rana
  8. [email protected] : syed sumon : syed sumon
সোমবার, ১০ মে ২০২১, ০২:২৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কোরবানপুর যুব সমাজের উদ্যোগে দেশের এবং প্রবাসীদের অর্থায়নে অবহেলিত রাস্তার আংশিক মেরামতের কাজ শুরু চুয়াডাঙ্গায় স্বর্ণের বারসহ ইউপি মেম্বার আটক নারায়ণগঞ্জে ৩৯৯ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার ২ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বর্ষের পরীক্ষা অনলাইনে, শুরু ২৪ মে দ্বিতীয় পর্যায়ে ৬৯৮৮ বীর মুক্তিযোদ্ধার তালিকা প্রকাশ ইসরায়েলকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র বললেন এরদোয়ান, ফিলিস্তিনিদের পাশে থাকার ঘোষণা পাসপোর্ট আবেদন ১৬ মে পর্যন্ত বন্ধ অতিরিক্ত মূল্যে কাপড় বিক্রি, আজমিরীগঞ্জে ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা মাজারের ভেতর রক্ত, পায়ের ছাপ নিয়ে রহস্য ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টে একজন থেকে আক্রান্ত হতে পারে ৪০০ জন শায়েস্তাগঞ্জে ভিজিএফের নগদ অর্থ পেলেন ৫৯৪ নারী-পুরুষ

মধু, চুইঝাল ও বাগদা চিংড়ি খুলনার ভৌগোলিক নির্দেশক

হলিবিডি প্রতিনিধিঃ খুলনার বাগদা চিংড়ির যেমন বিশ্বব্যাপী সুনাম আছে তেমনি এ এলাকার চুইঝালের রয়েছে ব্যাপক কদর। আবার দেশের সর্বত্র সুন্দরবনের মধুর বিস্তর চাহিদা আছে। এই তিনটি পণ্যকে খুলনার ভৌগোলিক নির্দেশক (জিআই) পণ্য হিসেবে নিবন্ধনের উদ্যোগ দেওয়া হবে।

রোববার বিকেলে খুলনা সার্কিট হাউস সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত ‘ভৌগোলিক নির্দেশক পণ্য নিবন্ধনঃ সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক সেমিনারে এ প্রস্তাব দেন অংশগ্রহণকারীরা।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের পেটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্কস অধিদপ্তর (ডিপিডিটি) ও খুলনা জেলা প্রশাসন আয়োজিত এ সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। সভাপতিত্ব করেন ডিপিডিটির ডেপুটি রেজিস্ট্রার মো. ওবায়দুর রহমান। জিআই পণ্য নিবন্ধনের সমস্যা ও সম্ভাবনা বিষয়ে উপস্থাপনা করেন ডিপিডিটির উপ-রেজিস্ট্রার মো. আজিম উদ্দিন।

সেমিনারে জানানো হয়, কৃষি, প্রাকৃতিক এবং তৈরি করা পণ্যকে একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলের জিআই পণ্য হিসেবে নিবন্ধনের সুযোগ আছে। জিআই পণ্য হিসেবে নিবন্ধিত পণ্য কেবল নিবন্ধিত ব্যক্তি, সমিতি বা প্রতিষ্ঠান সরবরাহ করতে পারবে। ফলে পণ্যের গুণগতমান নিশ্চিত হবে। কেউ ভেজাল বা নকল পণ্য উৎপাদন করতে পারবেন না। নকল করলে আইন অনুয়ায়ী শাস্তি পেতে হবে। এছাড়া নিবন্ধিত পণ্য এলাকার অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডকে বেগবান করবে, বিনিয়োগ বাড়াবে, বিদেশেও রপ্তানি করা যাবে।

সভায় সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদ, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আছাদুজ্জামান, অতিক্তি জেলা প্রশাসক মো. জিয়াউর রহমানসহ জেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

© All rights reserved © 2020 Holybd24.com
Design & Developed BY Serverneed.com