শিল্প-সাহিত্য/ গল্প/ কবিতা

নদী ভাঙে বসতবাড়ী -এম.সোহেল রানা

নদী ভাঙে বসতবাড়ী তুমি যে সুন্দরী নারী মনটা ভাঙলে মনটা কাড়িয়া-২ তুমি ছাড়া প্রাণ যে বাঁচেনা তুমি ছাড়া লাগে সবিই অচেনা-।। এ কুল ভেঙে ও কুল গড়ে নিত্য নদী খেলা করে, তুমি বিহনে প্রাণ পাখি দেহে থাকতে যে চাই না-২ এ কোন খেলা খেললে আমার পিরিতে পোঁড়া মনটাকে নিয়া মনটা ভাঙলে মনটা কাড়িয়া-।। চাঁদনী রাতে জোৎস্না ছাড়া ফুলের শোভা জ্যান্তই মরা, তুমি হিনা সময় যে কভূ কাটতে যে চাই না-২ সরল পেয়ে তুমি যে আমায় দূরে গেলে এমন ঠকিয়া মনটা ভাঙলে মনটা কাড়িয়া-।

বিস্তারিত »

আয়না হয়ে দেখাতে চাই -এম.সোহেল রানা

রাতের তারা সবই আছে দিনের আলোর আড়ালে, সুখের সংসার ধ্বংসের মূল বউ শ্বাশুড়ির কড়ালে। ছেলে বিদেশ প্রবাস জীবন কাটে যে অতি দুঃশ্চিন্তে, ঝগড়া বিবাদ বউ শ্বাশুড়ির লেগে থাকে দিনে রাতে। শ্বাশুড়ি বলে- আমার ছেলের উপার্জনের টাকায় বসে খাই, বউ বলে- স্বামীর টাকা ফুটানী পিছে কে কোন কথা কই। এমন কিছু কথা বলে বউ শ্বাশুড়িকে হুমকি দেয়, করে গেছো তোমরা যেটা আয়না হয়ে দেখাতে চাই। তোমার শ্বশুর-শ্বাশুড়িকে কেমন বল খাওয়ায়েছো, খেতে দিবার ভয়ে তখন পতি-পত্নী আলাদা হইছো। তোমার ছেলে আমার পতি জীবন সঙ্গী এখন দু’জনে, তোমার কাজটা করবো আমি আলাদা হয়ে সংসার জীবনে।

বিস্তারিত »

বাবা তোমার দেওয়া শিক্ষা নিয়ে গড়ব ভবিষ্যৎ, কাওছার 

বাবা:::লিখেছেন এস এ কাওছারপ্রতিনিধি, সাপ্তাহিক সংলাপ পত্রিকা কুলাউড়া, মৌলভীবাজার ✍️বাবা আমার বাবা তুমি আমার সব,তোমার দেওয়া শিক্ষায় নিয়ে গড়ব ভবিষ্যৎ। ভালোবাসি বাবা তোমায় কখনও ভুলি না তুমি আছো হৃদয় মাঝে তোমায় ভুলা যাবে না। তুমি ছাড়া বাবা আজ আমার হৃদয় ক্ষত-বিক্ষত তুমি নেই দেখে আজ খেলছে ওরা দাবা! বাবা তুমি ছিলে যখন মহান প্রভুর ভবে; কষ্ট নামক কাল নাগিনীর আঁচড় পাইনি তবে।   জানি বাবা উপর থেকে দেখছো তুমি সবই,কী পরিমাণ কষ্টে পেয়ে আজ হয়ে গেলাম কবি! ২০১৪ সাল ডিসেম্বরের প্রথম শুক্রবারে;প্রভুর ডাকে সারা দিয়ে চলে গেলে তাঁহার দরবারে। ওপারে তুমি ভালো থেকো প্রার্থনা করি শত,ফিরে তো আর আসবে নাকো আমার প্রিয় ...

বিস্তারিত »

অবাক লাগে – এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর

আমার এখন একলা থাকতে ভিষণ কি যে মজা লাগে, একলা বসে দূর্বা ঘাসে আপন মনে নীল আকাশে চেয়ে থাকতে দারুন লাগে। সে দিনের ঐ স্মৃতির কাফন মনে পড়লে খারাপ লাগে, তোমার কথা ভাবতে গেলে নিজের প্রতিই ঘেন্না জাগে। এখন আমি নিস্তব্ধ পাহাড় কাঁদতে একা ভালো লাগে, তোমার নিরব মৃদু আঘাত শয়তে বড়ই ইচ্ছে জাগে। এলো মেলো বুঁনো হাওয়ায় স্বপ্নে আমার আঘাত হানে, গুমরে গুমরে উষ্ণ তাপে ঝড়োও বৃষ্টি ডেকে আনে। করলে মুগ্ধ মিথ্যে অভিনয়ে নিজে মেকাপের অন্তরালে, দর্শক আমি গ্যালারিতে বসে ভাবতে গেলে অবাক লাগে।

বিস্তারিত »

পাহাড়ের কান্না -এম.সোহেল রানা

আচ্ছা… তুমি বলতে পারো কতটুকু আঘাতে কষ্টের তাপদাহে বুকের পাজর ফাঁটা মরুর বুকে চুরাবালি নিংড়ানো দুঃখ, চোখের কোণে জলের আকার নিয়ে বের হয়ে কপোল বেয়ে গড়ে পড়ে। জানি তুমিতো বিজ্ঞান নিয়ে পড়েছো এমন তো গবেষণা করেছো নিশ্চয়! আমার বিশ্বাস তুমিই পারবে হইতো বলবে কত ফোটা রক্ত দিয়ে চোখের এক ফোটা জল তৈরি হয়ে থাকে। অবাক হলে বুঝি এমন প্রশ্নের জন্যে তোমাদের মত মেয়েরাই তো আজ এমন হাজার প্রশ্নের জন্ম দিয়ে যায় তোমরা কখনো দুঃখ কষ্ট পেতে নয় কষ্ট শুধু দিতে জান দিতেই এসেছো। বলতে পারো এতো বড় পাহাড় কেন থাকে নীরাবতা নিঃসঙ্গ একা একা? শুনেছি পাহাড় ভালবাসতো মেঘকে আর মেঘ ...

বিস্তারিত »

বাঁচাও মানব কুল ।। এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর

রহমানের রহিম তুমি, তুমি মেহেরবান তুমিই পার জীবন বাঁচাতে, আবার করতে অবসান। আমরা মানব ভীষণ পাপি, করেছি কত ভুল তোমার কুদরতি বৃষ্টি দিয়ে, বাঁচাও ভূমি পক্ষী-মানব কুল। বৃষ্টির লাগি নদ-নদী ভূমি করছে হাহাকার আহাজারি করে বৃক্ষরাজী যারা যিকিরে মগ্ন সদায় তোমার। অনাবৃষ্টি থেকে বাঁচাও তুমি মোদের ক্ষমা কর ডাকতে জানিনা খোদা তোমায়, মোদের প্রার্থনা কবুল কর। তুমি রহমান তুমি মেহেরবান তুমিই পার পোঁড়াতে কিংবা ডোবাতে তুমিই পার সকল মাখলুকাত বাঁচাতে কিংবা মারতে। আমরা মানব সেঁজে দানব, মগ্ন হয়েছি ক্ষণস্থায়ী দুনিয়াতে না শুকরিয়ায় মত্ত্ব সদায়, থাকি সেথায় মেতে। শ্রেষ্ট মানব কুল “কবিরা-ছগীরা” করি কত ভুল আবার ক্ষমা কর প্রভূ তুমি, চাইলে ...

বিস্তারিত »

রমযান হলো-সিয়াম সাধন

এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর . রমযান হলো- সিয়াম সাধন নফস দমনে আত্মশুব্ধির মাস, নামাজ- কালাম পড়তে হবে সৃষ্টিকর্তার প্রতি রেখে বিশ্বাস। রমযানের রোজা করেছে ফরজ সুস্থ্য দেহে মোমিন মুসলমানের সুবহে সাদিক সেহরী খেয়ে সারাদিন রবে সবে অনাহারে। রমযান শুধু, থাকা নয় অনাহারে অশ্লীল থেকে বিরত মানব দেহাদেশ, সন্ধা হলে সবে, মিলে রোজাদারে ইফতার করার রয়েছে নির্দেশ। রমযান হলো- জান্নাত পাওয়ার মোমিনদের দোয়া কবূলের মাস, জাহান্নামের দার থাকে অবরুদ্ধ জান্নাতি দার অবমুক্ত, নেই যার অবকাশ। প্রথম দশক মাগফিরাতের দ্বিতীয় দশক পাবে রহমাত, তৃতীয় দশক নাজাত পাবে নিশি জেগে করলে ইবাদত।

বিস্তারিত »

নীরব কান্না

এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর . স্বচ্ছ সু-নীল আকাশটা, চাইনা কেহ দেখতে আকাশের বুকে চন্দ্র-তারার, মেলা না বসলে। তিমির রাত্রির কথা কখনো, বুঝতে কেহ চাইনা রাতের বুকে জ্যোৎস্না ভেলায়, জোনাকি না জ্বললে।। আকাশের কষ্ট কেউ তো, কভূ জানতে চাইনা কত না কষ্টে মেঘ হয়ে, জমে আকাশের বুকে। আকাশ ও মাটির মিলনে, কান্নার ব্যাকুলতায় বৃষ্টি হয়ে মেঘ ঝরে জমিনে, কত নিবিড় সুখে ।। একাকিত্ব পাহাড়ের নীরব, আহাজারি সর্বদায় অঝরে কান্না পাহাড়ের, ঝরনাতে প্রকাশ পায়। মেঘ পাহাড় দিবা-রাত্রিকে, কাঁদতে দেখেছি আমি অশীম আকাশের উদারচিত্ত, শিক্ষা দেয় অন্তর্যামী। রাতের নীরব কান্নাগুলো, কেউ না ওগো শোনে দিবা রাত্রির মিলনের গল্প, যায় যে প্রহর গোনে। আকাশ-মাটি দিবা-রাত্রির, ...

বিস্তারিত »

বেহায়াপনা

এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর . এই সমাজে কত যে কীট ঘুরছে সাধু বেশে জীবন গাড়ী ব’য়ে গেল মিথ্যার ডানায় ভেসে চলাচল যার বুক উচিয়ে বেহায়া মুচকি হেসে মন্দবুদ্ধি খুপড়ি বুজায় উকুধরা শ্বেত কেশে, হীনচেতা বিবেকবুদ্ধি সমাজ দেখানো কর্ম স্বপ্ন দেখায় শোষণ শুদ্ধি দেশের প্রতি কি মর্ম, আপন চলন মিথ্যা পথে শেখায় সত্যের সন্ধি লোক ঠকানো দালালিতে জীবনটা যার বন্দি। যদি একবার নাককাটা যায় ছোট্ট কোন ভুলে চির জনমের শিক্ষা সে পাই বংশীয় জাত হলে, কানকাটা জাত লোক সমাজে কি হারাবার ভয় লজ্জার মাথা চিবিয়ে খেয়ে সেই সমাজেই রই।

বিস্তারিত »

যুগল স্বপ্নচারিণী

এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর . মনেপ্রাণে তব ছিল এমন বুঝিনি তা আগে যুগল স্বপ্ন কল্পকাহিনী দেখতে জেগে জেগে, স্বপ্নবাজ তুমি অতি নিখুঁত প্রকৌশলী বটে নিরবে নিজ ভাগ্য লেখন বসায়লে ললাটে। আপন ভেবে যাকে বুকে আগলে রেখেছিলে সেই তোমাকে দূর্বল ভেবে আঘাত করে যবে, কত আপনজন সদায় ছিল বন্ধু স্বজন রূপে ছিলনা কেহ জীবন যুদ্ধে দারিদ্রতার কোপে। স্বপ্নচারিণী বল তো তোমার স্বপ্নদ্রষ্টা সে কে পারো কি বলতে কি পেয়েছে স্বপ্ন পূরণে সে? বুকের মধ্যে ধারণ করতো হাসিমাখা তব মুখ তোমার সুফলই তাহার তরে চিরজীবনের সুখ। ভাবছো তুমি সাধারণ অতি জিতেছি এ ধরাতে জগৎ স্বামীর বিচার নিখুঁত দাঁড়াবে কাঠগড়াতে, সে দিন জবাব দিতে ...

বিস্তারিত »
https://gnogle.ru/project/edit/102
WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com