ইতিহাস ও ঐতিহ্য

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর ফেঞ্চুগঞ্জের কাইয়ার গোদামে শ্রদ্ধ্যা নিবেদন ও পুষ্পস্তবক অর্পণ।

এমরান আহমেদ ফেঞ্চুগঞ্জ সিলেট :: সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত বধ্যভূমি কাইয়ার গোদামে প্রথম বারের মতো বাতি প্রজ্জ্বোলন ও পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়েছে। ২৫ শে মার্চ, রাত ৯ টা ৩০ মিনিটের সময় ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের পক্ষ থেকে স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর ফেঞ্চুগঞ্জের জল্লাদখানা কাইয়ার গোদামে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করা হয়।এসময় ২৫ শে মার্চ গনহত্যা দিবস এবং মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আলোচনা এবং শ্রদ্ধ্যাঞ্জলী নিবেদন করা হয়। শ্রদ্ধা নিবেদনে উপস্থিত ছিলেন- ফেঞ্চুগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির আহবায়ক আব্দুল বারী, সিলেট ভিউ ২৪ এর ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি সাংবাদিক ফরিদ অদ্দিন, আওয়ামীলীগ নেতা মিসবাহ আহমেদ চৌধুরী, বিজন দেবনাথ, প্রবাসী কমিউনিটি নেতা বীর প্রতীক আব্দুর ...

বিস্তারিত »

মোঘল স্থাপত্যের নিদর্শন হিসেবে বরগুনার বেতাগীতে অবস্থিত বিবিচিনি শাহী মসজিদ

মো.মিজানুর রহমান নাদিম,বরগুনা থেকে : বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে মোঘল স্থাপত্যের নিদর্শন হিসেবে যে কয়টি মসজিদ রয়েছে তারই মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি হলো বরগুনার বিবিচিনি শাহী মসজিদ। আয়তনে অতটা বৃহত্ না হলেও প্রায় সাড়ে তিনশ বছর পুরোনো এই মসজিদটির স্থাপত্য রীতিতে মোগল ভাবধারার ছাপ সুস্পষ্ট। বরগুনা জেলার বেতাগী উপজেলা সদর থেকে ১০ কি. মি. দূরে বিবিচিনি ইউনিয়নে এই মসজিদটি অবস্থিত। এলাকার অধিকাংশ মানুষের মতে ১৬৫৯ খ্রিস্টাব্দে হযরত শাহ্ নেয়ামত উল্লাহ (র.) পারস্য থেকে এই এলাকায় ইসলাম প্রচারের উদ্দেশ্যে এসে বিবিচিনিতে এ মসজিদটি নির্মাণ করেন। তার কন্যা চিনিবিবি এবং ইসাবিবির নামানুসারে বিবিচিনি গ্রামের নামকরণ করা হয়েছে এবং মসজিদটির নাম রাখা হয়েছে বিবিচিনি শাহী ...

বিস্তারিত »

নবীগঞ্জের এই নদী দিয়ে চলত লঞ্চ, স্টিমার, জাহাজ

নবীগঞ্জ :: নদীমাতৃক দেশ বাংলাদেশ। শাখা-প্রশাখাসহ প্রায় ৮শ’ নদ-নদী বিপুল জলরাশি নিয়ে ২৪ হাজার ১শ’ ৪০ কিলোমিটার জায়গা দখল করে দেশের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হতো। কিন্তু কালের বির্তন আর নদী শাসনের ফলে কমে গেছে নদ-নদীর পরিমাণ। তেমনি একটি নদী ‘শাখা বরাক’। হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে সুরমা ও কুশিয়ারা নদীতে গিয়ে মিলিত হয়েছে। এক সময় এই নদীর উপরই নির্ভর ছিল নবীগঞ্জ উপজেলার অর্থনৈতিক অবস্থা। জেলেদের মাছ আহরণসহ ব্যবসা-বাণিজ্যের জন্য সারাদেশের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম ছিল ‘শাখা বরাক’ নদী। কিন্তু এখন আর সেই অবস্থা নেই। দখল আর দূষণের কবলে পড়ে অস্থিত্ব¡ সংকটে পড়েছে নদীটি। কিছু অংশে নদীর গতিপথ থাকলেও ...

বিস্তারিত »

আজ কলঙ্কিত মানুষই এ সমাজের অধিপতি

সুহেল রানা মেহেরপুর প্রতিনিধিঃ মানুষ সামাজিক জীব। আমরা এই সমাজে সকলেই একে অপরের পরিপূরক হয়ে একসাথে বসবাস করে থাকি। মানুষের চিন্তা-চেতনা, বিবেক, জ্ঞান-বুদ্ধির ফলেই মানুষ একতাবদ্ধ, দলবদ্ধ, সমাজবদ্ধ। প্রাচীনতম সংগঠণ হলো সমাজ, আর এ সমাজ বহু জাতি, ধর্ম, বর্ণের মানুষের সমন্বয়ে গঠিত। তাই আমাদের চিন্তা ধারাটাও বহুরূপি ও এক-এক ধারার। এখনো আমাদের সমাজে সেই মানধাত্তা আমলের বস্তাপঁচা চিন্তা ভাবনা বিরাজমান রয়েছে। এটা আমাদের অজ্ঞতার বহিঃপ্রকাশ- অনেকেই না জেনে বুঝে আমাদের এ ঘুণেধরা সমাজে এখনো বলে থাকে “অমক” স্থানে “অমক” ছাড়া কেহ যোগ্য ব্যক্তি ছিল না আজও কেহ তার মত হতে পারে নি। এটা আমাদের ভুল ধারনা, কেহই করো মত হয় ...

বিস্তারিত »

মাটি খুঁড়ে মিলল ইতিহাসখ্যাত রাজা বল্লাল সেনের রাজপ্রাসাদ

মুন্সিগঞ্জ : মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের বল্লাল বাড়ি গ্রামে খনন করে ইতিহাসখ্যাত রাজা বল্লাল সেনের প্রাচীন প্রাসাদের সন্ধান পাওয়া গেছে। সোমবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত বল্লাল বাড়ি গ্রামের একটি পানের বরজের মাটি খুঁড়ে এই প্রত্ননিদর্শনের সন্ধান পাওয়া যায়। গত সপ্তাহ থেকে অনুসন্ধান চালিয়ে সোমবার খননকাজ শুরু হয়। এই খননকাজের নেতৃত্ব দিচ্ছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক সুফি মুস্তাফিজুর রহমান। বাংলাদেশের ঐতিহ্য অন্বেষণের নির্বাহী পরিচালক ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগের অধ্যাপক সুফি মোস্তাফিজুর রহমান ও চীনের অধ্যাপক চাই হোয়াং বোর নেতৃত্বে বড় একটি দল এই খননকাজে অংশ নিয়েছেন। অধ্যাপক মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, এটি ছিল সেন বংশের রাজা বল্লাল সেনের রাজপ্রাসাদ। ...

বিস্তারিত »

তাহিরপুরে মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে ১২০০বছরের পুরোনো ‘রাজধানী চিহ্ন’

সুনামগঞ্জ :: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় ১২০০পর মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে প্রাচীন লাউড় রাজ্যের রাজধানী হলহলিয়া দূর্গ ও ব্রাহ্মনগাঁওয়ের গৌর গোবিন্দের রাজবাড়িটি। তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বড়দল ও দক্ষিন বড়দল ইউনিয়নের মধ্যবর্তি স্থান হলহলিয়া গ্রামে। এই দৃশ্য দেখতে জমায়েত হচ্ছে প্রতিনিধি শত শত মানুষ।গত বুধবার(১৪ নভেম্বর)দুপুর থেকে শুরু হওয়া উৎখনন কাজের মধ্য দিয়ে পুরনো রাজবাড়িটি তার অতীত ইতিহাস ঐহিত্য নিয়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শুরু করেছে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান ডঃ মোহাম্মদ সাদিকের প্রচেষ্টায়। দুই মাসব্যাপি চলবে উৎখননের কাজ প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আঞ্চলিক পরিচালক ডঃ মুহাম্মদ আতাউর রহমান নেতৃত্বে ৯সদস্য বিশিষ্ট টিমে রয়েছেন ঢাকা প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের সহকারি ...

বিস্তারিত »

ইন্টারনেট ব্যবহারে বাংলাদেশ পঞ্চম, শীর্ষ চীন

হলিবিডি ডেস্ক::::এশিয়ায় সবচেয়ে বেশি ইন্টারনেট ব্যবহার করেন চীনের নাগরিকেরা। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান পঞ্চম। বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী বৃদ্ধির হার সবচেয়ে বেশি। বর্তমানে বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী বৃদ্ধির হার ৮০ হাজার ৩৮৩ শতাংশ। ইন্টারনেট ওয়ার্ল্ড স্ট্যাটাস প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। ভারতের নয়াদিল্লি থেকে এ খবর দিয়েছে ডাটালিডস। ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যা প্রায় ১৭ কোটি। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৮ কোটি ৩ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এর আগে ২০০০ সালে ১৩ কোটি ১৫ লাখ জনসংখ্যার বিপরীতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ছিল মাত্র ১ লাখ। ...

বিস্তারিত »

আজ সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের নবম মৃত্যু বার্ষিকী

হলিবিডি ডেস্কঃ বাংলাদেশের আধুনিক অর্থনীতির রূপকার কে? যখন কোন সত্য সন্ধানী এই প্রশ্নটির উত্তর খুঁজতে যাবে তখন যে ব্যক্তিটির কথা ফ্রন্ট লাইনে চলে আসবে তিনি আর কেউ নন, তিনি হচ্ছে মরহুম সাইফুর রহমান। আজ বাংলাদেশ যতটুকু অর্থনৈতিক সমৃদ্ধতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে, তার পিছনে আছে সাইফুর রহমানের যুগান্ত সৃষ্টিকারী অর্থনৈতিক রোডম্যাপ এবং সে রোডম্যাপের আলোকে দেশের অর্থনীতিকে পরিচালিত করা। দেশে পাঁচ বছর পরপর সরকার বদল হলেও আজ পর্যন্ত সাইফুর রহমানের প্রদর্শিত অর্থনীতির রূপরেখাকে কেউ বদল করেননি, বরং বিভিন্ন সরকার সেই নীতির আলোকে দেশের অর্থনীতিক মানদণ্ডকে ক্রমান্বয়ে এগিয়ে নিয়ে চলছেন। সাইফুর রহমান দেশ জাতির জন্য যা করে গেছেন তা অনেক অর্বাচীনদের ...

বিস্তারিত »

স্বাধীনতা যুদ্ধের সূতিকাগার মুজিবনগর এবং ১৭ এপ্রিল প্রসঙ্গে…[তৃতীয় পর্ব]

এম.সোহেল রানা; মেহেরপুর . মুজিবনগর স্মৃতিসৌধের স্থাপত্য ও তাৎপর্যঃ- পূর্বের নাম বৈদ্যনাথতলা আম্রকানন তথা বর্তমান নাম মুজিবনগর। এই মুজিবনগর স্মৃতিসৌধের স্থপতি হলেন- জনাব,তানভীর কবির। লাল মঞ্চ- ১৯৭১ সালের ১৭ই এপ্রিল বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকার যে স্থানে শপথ গ্রহণ করে ঠিক সেই স্থানে ২৪ ফুট দীর্ঘ ও ১৪ ফুট প্রশস্থ সিরামিকের ইট দিয়ে একটি আয়তকার লাল মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। যা মুজিবনগর স্মৃতিসৌধের ভিতেরে মাঝখানে। ২৩টি স্মৃতি স্তম্ভ- স্মৃতিসৌধটি ২৩ টি ত্রিভূজাকৃতি দেয়ালের সমন্বয়ে গঠিত। যা বৃত্তাকার উপায়ে সারিবদ্ধভাবে সাজানো রয়েছে। ২৩ টি দেয়াল [আগষ্ট ১৯৪৭] থেকে [র্মাচ ১৯৭১]- এই ২৩ বছরের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রতীক হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে। প্রথম দেয়ালটির উচ্চতা ৯ ...

বিস্তারিত »

স্বাধীনতা যুদ্ধের সূতিকাগার মুজিবনগর এবং ১৭ এপ্রিল প্রসঙ্গে…

এম.সোহেল রানা :: . [দ্বিতীয় পর্ব] . কে.এফ রুস্তামজী দিল্লির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে তাকে জানানো হয় তাজউদ্দীন আহমদ ও ব্যারিস্টার আমীর-উল ইসলামকে নিয়ে দিল্লি চলে আসার জন্য। উদ্দেশ্য, তৎকালীন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী মহীয়সী নারী ইন্দিরা গান্ধী এবং তাজউদ্দীন আহমদের বৈঠক। দিল্লিতে যাবার পর ভারত সরকার বিভিন্ন সূত্র থেকে নিশ্চিত হন যে, তাজউদ্দীন আহমদ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠতম সহকর্মী। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে বৈঠকের আগে ভারত সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে তাজউদ্দিন আহমদের কয়েক দফা বৈঠক হয় এবং তিনি তাদের বাঙালীর মুক্তি সংগ্রাম পরিচালনার জন্য যেসব সাহায্য ও সহযোগিতার প্রয়োজন তা বুঝিয়ে বলেন। এসময় তিনি উপলব্ধি করেন যে, আওয়ামী ...

বিস্তারিত »
https://gnogle.ru/project/edit/102
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com