এই মাত্র পাওয়া খবর
|
সর্বশেষ
ফেঞ্চুগঞ্জে কয়েস নয়, নৌকার পক্ষে প্রচারণা, এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড়         ছকাপন যুব সমাজের উদ্দ্যোগে বিজয় দিবস উদযাপন         সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জে রুমন ও সোহেল স্মৃতি স্পোর্টিং ক্লাব এর ফাইনাল খেলা অনুষ্টিত।         বিজয় দিবসে বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরাম সিলেট জেলা শাখার শ্রদ্ধাঞ্জলি         জামেয়া মোহাম্মদীয়া চিলারকান্দি মাদরাসায় বিজয় দিবস উদযাপন         দারুল উলূম সিলেট মাদ্রাসায় মহান বিজয় দিবস পালন         সিলেট ৩ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী শফি চৌধুরীর গণসংযোগ।         নারীদের অবদানে রাজশাহী আরও এগিয়ে যাবে : মেয়র লিটন         ২৪ থেকে ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন         বাংলাদেশ জিজ্ঞাসা || কে পাচ্ছেন কোটি টাকা?         ড. কামালের ওপর হামলা ফৌজদারি অপরাধ, গ্রেফতারের ক্ষমতা আছে সেনাবাহিনীর-কে এম নূরুল হুদা         ভোট চাইলেন চরমোনাই পীর         আ.লীগের ইশতেহার ঘোষণা ১৮ তারিখ         ওয়ানডেতে সাফল্য : বিশ্বে তৃতীয় বাংলাদেশ         ব্যারিস্টার মাহাবুব উদ্দিন খোকন গুলিবিদ্ধ, থমথমে নোয়াখালী        

মোবাইলে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে বাসায় আনাই ছিল তাদের পেশা!

প্রকাশিত হয়েছে : ১১:২১:৩৯,অপরাহ্ন ৩১ মার্চ ২০১৮ | সংবাদটি ২৫৪ বার পঠিত

হলিবিডি ডেস্ক : মোবাইল ফোনে ব্যবসায়ীদের অনৈতিক প্রস্তাব দিত স্বামী পরিত্যক্ত মেয়েটি। প্রলোভনে পড়ে কেউ ফাঁদে পা দিলেই তাকে বাসায় আটকে রাখা হতো। এর পর আদায় করা হয় মোটা অংকের অর্থ।

রাজশাহীর পুঠিয়া থেকে এমন এক প্রতারকচক্রের চার সদস্যকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন স্থানীয়রা।
শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার বানেশ্বরবাজারের চেয়ারম্যানপাড়ার আয়েন উদ্দীনের বাড়ি থেকে তাদের আটক করা হয়।
আটকরা হলেন- চারঘাট উপজেলার হাবিবপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দীনের স্বামী পরিত্যক্ত মেয়ে মৌটুসি বেগম (২৪), রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানার হেতেম খাঁ এলাকার শওকত আলীর ছেলে শিলু পারভেজ (৪০), একই এলাকার আব্দুস সামাদের ছেলে পিয়াস (৩২) ও মিলন আহমদের ছেলে মিনহাজুল (২২)।

পুঠিয়া থানার এসআই ইফতেখার মো. আল আমীন জানান, ওই চক্রটি বানেশ্বরবাজারে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে একটি বাড়িতে বসবাস করতেন। তারা দীর্ঘদিন ধরে বানেশ্বরসহ বিভিন্ন এলাকার ব্যবসায়ীদের মোবাইল ফোন নম্বর সংগ্রহ করত। পরে মেয়েটির মাধ্যমে ওই লোকজনদের সঙ্গে মোবাইলে সম্পর্ক করে অনৈতিক কাজের প্রস্তাব দিত। ওই ফাঁদে পড়ে যারা তাদের বাসায় আসে, তাদের জোরপূর্বক জিম্মি করে মোটা অংকের অর্থ আদায় করত।

এসআই জানান, একইভাবে গত ২৯ মার্চ রাতে প্রতিবেশী ভাড়াটিয়া আলফাজুল ইসলামকে বাসায় ডেকে আনে চক্রটি। পরে তারা আলফাজুলকে জুসের সঙ্গে নেশাজাতীয় ওষুধ মিশিয়ে অচেতন করে তার বাড়ির মূল্যবান জিনিসপত্র হাতিয়ে নেয়।
ইফতেখার আরও জানান, এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে শুক্রবার রাতে স্থানীয়রা চার প্রতারককে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। শনিবার দুপুরে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

About loskor @loskor

Leave a Reply

Your email address will not be published.