Main Menu

৬ মাসে গ্রামীণফোনে আয় ৭ হাজার ৯০ কোটি টাকা

অর্থবানিজ্য ডেস্ক : ২০১৯ সালের প্রথম ছয় মাসে গ্রামীণফোনের রাজস্ব আয় হয়েছে ৭ হাজার ৯০ কোটি টাকা। যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১০ দশমিক ৬ শতাংশ বেশি। এই সময়ে প্রতিষ্ঠানের গ্রাহক সংখ্যা ৮ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭ কোটি ৫৩ লাখ এবং ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ৩ কোটি ৯৭ লাখ। সম্প্রতি গ্রামীণফোনের প্রকাশিত অর্ধ-বার্ষিক আর্থিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুয়ায়ি, গ্রামীণফোন চলতি বছরের ছয় মাসকে নিয়ন্ত্রণমূলক ও চ্যালেঞ্জিং পরিবেশ হিসেবে উল্লেখ করেছে। তা সত্তে¡ও এই সময়ে তারা ৭ হাজার ৯০ কোটি টাকা রাজস্ব আয় করেছে। যা ২০১৮ সালের প্রথম ছয় মাসের তুলনায় ১০ দশমিক ৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, তাদের আয় করা রাজস্বের ৫৮ শতাংশ কর বাবদ রাষ্ট্রীয় কোষাগারে প্রদান করেছে। ভ্যাট, ট্যাক্স, ডিউটি, ফি, ফোরজি লাইসেন্স এবং স্পেকটার্ম অ্যাসাইনমেন্ট বাবদ ৪ হাজার ৯০ কোটি টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দিয়েছে।

প্রতিবেদন থেকে আরও জানা যায়, প্রথম ছয় মাসে প্রতিষ্ঠানটির নেটওয়ার্কে ১৩ লাখ নতুন গ্রাহক যোগ দিয়েছে। যেটি ২০১৮ সালের শেষ প্রান্তিকের তুলনায় ৩ দশমিক ১ শতাংশ বেশি। একই সময়ে গ্রামীণফোন ১৬ লাখ নতুন ইন্টারনেট গ্রাহক পেয়েছে। গ্রামীণফোনের মোট গ্রাহক সংখ্যার ৫২ দশমিক ৮ শতাংশ এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করছে।

গ্রামীণফোন জানিয়েছে, ২০১৯ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটি ৩৮০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। এ সময়ে প্রতিষ্ঠানটি ১ হাজার ৫৬০টি নতুন ফোরজি সাইট স্থাপন করেছে এবং পাশাপাশি নেটওয়ার্ক আধুনিকায়নে অর্থ ব্যয় করেছে। গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বলেন, চ্যালেঞ্জিং ব্যবসায়িক পরিবেশ থাকা সত্তে¡ও ২০১৯ সালের প্রথম ছয় মাসে শক্তিশালী ফলাফল অর্জন করেছি। এ সময়ে আমরা ফোরজি নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়নে গুরুত্ব দিয়েছি। জুন মাসের শেষ নাগাদ বাংলাদেশের ৬২ শতাংশ জনসংখ্যা গ্রামীণফোনের ফোরজি নেটওয়ার্কের আওতায় এসেছে।






Related News

Comments are Closed