Main Menu

৩,১৯৯ বার ওমরাহ পালন, টানা ২০ বছর রাখছেন রোজা

জীবন ও ইসলাম ডেস্ক : হজ পালনের মনোবাসনা প্রতিটি মুসলমানেরই থাকে। কারো ভাগ্যে হজ জুটে আর কারো হয়তো সৌভাগ্য হয় না। ইসলামের এই মৌলিক স্তম্ভটি (যাদের সামর্থ আছে, শুধু তাদের জন্য প্রযোজ্য) আর্থিক ও কায়িক শ্রমের মিশেল থাকায় অনেকেই পালন করতে সক্ষম হন না।

এর ফলে কেউ কেউ ওমরাহ করেন। আবার অনেকেই হজ আদায়ের পর ওমরাহ করে আল্লাহপ্রেমের ষোলকলা পূর্ণ করেন।

হজের তুলনায় ওমরাহ পালন করা যথেষ্ট সহজ। কিন্তু একজন মানুষ সর্বোচ্চ কয়টি ওমরাহ করতে পারেন? ৫, ১০, ২০, ৫০ কিংবা সর্বোচ্চ ১০০টি!

অবিশ্বাস্য হলেও সত্য, পাকিস্তানের একজন আল্লাহ ও নবী প্রেমিক মুসলমান মোট ৩ হাজার ১৯৯ বার ওমরাহ করেছেন। এতগুলো ওমরাহ তিনি গেল সতের বছরের বিভিন্ন সময়ে আদায় করেছেন।

অনেকেই বলছেন, এমন সাফল্য ও সৌভাগ্য হয়তো আর কারো ভাগ্যে জুটেনি। এই ব্যক্তি বিশ্বের সর্বোচ্চ সংখ্যক ওমরাহ পালনকারী হিসেবে এমন চমৎকার ও সম্মানজনক অর্জনের রেকর্ড করেছেন। রোববার পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম দ্য নেশন এমনটাই জানিয়েছে।

এমন কীর্তি গড়া ও সৌভাগ্যবান ব্যক্তির নাম সৈয়দ দিলনাওয়াজ শাহ। পবিত্র মক্কা শরিফে রমজানের বরকতময় মাস কাটানোর পর গেল বৃহস্পতিবার তিনি নিজ শহর করাচিতে ফিরেন।

এছাড়া অন্য অবাক করা বিষয় হলো, গেল ২০ বছর ধরে টানা প্রতিদিন রোজা রাখছেন সৈয়দ দিলনাওয়াজ। তবে নিষিদ্ধ (ইসলামে) দিনের সময়ে রোজা রাখেন না। ১৯৯৯ সালের জুন থেকে তিনি রোজা রাখা শুরু করেন।

জানা যায়, মক্কায় থাকাকালীন তিনি দৈনিক ৩টি করে ওমরাহ পালন করেন। এভাবে এ পবিত্র মাসে সব মিলিয়ে প্রায় ৫ ডজন ওমরাহ করেছেন। এরপর রমজানের শেষ দশদিন তিনি মদিনা মুনাওয়ারায় পবিত্র মসজিদে নববীতে অতিবাহিত করেন।

সৈয়দ দিলনাওয়াজ করাচির একটি গ্যাস কোম্পানির ডেপুটি ম্যানেজার ছিলেন। ২০১২ সালে অবসরে যান। গত ১৭ বছরের সময়কালে তিনি প্রায় প্রতি বছর একবার করে সৌদি আরব সফর করছেন।






Comments are Closed