Main Menu

স্বাধীনতাকে শাশ্বত ও স্বার্থক করে তুলতে হলে প্রয়োজন অবিচার,দূর্নীতি এবং রাজনৈতিক ক্ষমতার দাপট দূর করা।টিপু সুলতান টিঠু

একাত্তরের মতো অর্জন আজো পাই নি আমরা।দীর্ঘ ৯ মাস বাঙ্গালী জাতী হিসেবে আমরা যে ঐক্যের পরিচয় দিয়েছি, যে সহনশীলতার পরিচয় দিয়েছি কিংবা যে সাম্যের পরিচয় দিয়েছি তা আজ আমাদের মাঝ থেকে দূরে সরে গেছে।

একাত্তরের অর্জন নিয়ে আমরা এতোটাই আত্ন-তুষ্টিতে ভোগছি ;আমরা থেমে যাচ্ছি। আমরা আমাদের সামর্থ্যের অনেক ভেতরেই ঘোরপ্যাঁচ খাচ্ছি।আমরা আরোও অগ্রসর হতে পারতাম।

আমরা আজো তনু হত্যার বিচার পাইনি।এদেশে নারী নির্যাতন বন্ধ হয়নি, নতুন দানব সড়কে কেড়ে নিচ্ছে হাজার হাজার প্রাণ।প্রতিনিয়ত নতুন নতুন মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় যোগ হচ্ছেন সরকারের ভাতা ভোগের জন্য ;নিজের স্বার্থ-সিদ্ধির জন্য।

সড়কের মৃত্যুর সারি কেন দীর্ঘতর হচ্ছে? মদখোর-গাজাখোর ড্রাইভাররা ওয়াসিমদের খুন করে যাচ্ছে! এখনো বেকারত্বের অভিশাপে তরুণরা নিকোটিনে ডুব দিচ্ছে।আমরা প্রত্যাশিত জায়গায় এখনো যেতে পারি নি।একদিনে আড়ম্বরপূর্ণ দেশপ্রেমে আমরা এখনো মেতে উঠি।

যতোদিন যুবকেরা নিকোটিনিক থাকবে, যতোদিন গাজাখোরের হাতে গাড়ির হুইল স্টিয়ারিং থাকবে,যতোদিন ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের দৌরাত্বে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধারা কোনঠাসা থাকবে ততোদিন ত্রিশলক্ষ শহীদের আত্নার প্রশান্তি আসবেনা।আমরা নিশ্চিতভাবে বলতে পারবো না শহীদের আত্নার অভিশাপ মুক্ত হতে পেরেছি কি না।

যতোদিন ধর্ষকের অট্টহাসি থাকবে, যতোদিন তনু-খাদিজাদের ক্রন্দনে বাতাস ভারী থাকবে ততোদিন কয়েক লক্ষাধিক সম্ভ্রম খোয়ানো মা-বোনের আত্নার প্রশান্তি আসবে না।

স্বাধীনতাকে শাশ্বত ও স্বার্থক করে তুলতে হলে প্রয়োজন আইনের সুশাসন নিশ্চিত করা।এদেশ থেকে অবিচার,দূর্নীতি এবং রাজনৈতিক ক্ষমতার দাপট দূর করা।যতোদিন আমরা এগুলোর অন্তরালে থাকছি ততোদিন স্বাধীনতা স্বার্থক হচ্ছেনা।
,,,সম্পাদনায় এমরান আহমেদ,,,






Related News

Comments are Closed