Main Menu

সুনামগঞ্জে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য প্রশাসনিক অনুমোদন পেল। ।

হলিবিডি ডেস্কঃ বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল সুনামগঞ্জ প্রকল্প প্রশাসনিক অনুমোদন পেয়েছে। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সহকারী প্রধান মোছা. মাসুদা বেগম স্বাক্ষরিত এক স্মারকে এই তথ্য জানানো হয়।
এর আগে গত ২৯ জানুয়ারি পরিকল্পনা বিভাগের এনইসি-একনেক ও সমন্বয় অনুবিভাগ (একনেক শাখা ১) স্মারকে জানানো হয় ২০২১ সালের ৩০ জুনের মধ্যে প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। এক হাজার একশত সাত কোটি সাতাশি লক্ষ আটানব্বই হাজার টাকার এই প্রকল্পটি সম্পূর্ণ জিওবি অর্থায়নে বাস্তবায়িত হবে। এসময় প্রকল্পের অঙ্গ ও অঙ্গভিত্তিক ব্যয় অনুমোদিত হয়।
প্রকল্পের অনুমোদিত ব্যয়ের মধ্যে রয়েছে অফিসারদের বেতন ৪৩ লক্ষ ৮৮ হাজার টাকা, কর্মচারীদের বেতন ৪ লক্ষ ৭ হাজার টাকা, বাড়ী ভাড়া ২১ লক্ষ ৫৮ হাজার টাকা, মেডিকেল ভাতা ১ লক্ষ ৬২ হাজার টাকা, যাতায়াত ভাতা ১৪ হাজার টাকা, উৎসব ভাতা ১০ লক্ষ ৭২ হাজার টাকা, শান্তি বিনোদন ভাতা ৭৭ হাজার টাকা, টিফিন ভাতা ১০ হাজার টাকা, শিক্ষা ভাতা ৮৪ হাজার টাকা, অন্যান্য ভাতা ৭৩ হাজার টাকা, অভ্যন্তরীণ ভ্রমণ ব্যয় ১০ হাজার টাকা, আনুষাঙ্গিক কর্মচারী-প্রতিষ্ঠান ৩০ লক্ষ টাকা, কাষ্টমস শুল্ক ৩২ লক্ষ টাকা, ডাক ৮ লক্ষ, টেলিফোন ৬ লক্ষ, ইন্টারনেট/টেলেক্স/ফ্যাক্স ৪ লক্ষ টাকা, নিবন্ধন ফি ১৯ লক্ষ টাকা, পানি ৫ লক্ষ টাকা , বিদ্যুৎ ১২ লক্ষ
টাকা, গ্যাস ৯ লক্ষ টাকা, পেট্রোল, ওয়েল এন্ড লুব্রিকেন্ট ৩০ লক্ষ টাকা, ব্যাংক চার্জ ৪ লক্ষ টাকা, মুদ্রণ ও বাঁধাই ১২ লক্ষ টাকা, স্ট্যাম্প ও সিল ১ কোটি, প্রচার ও বিজ্ঞাপন ব্যয় ৩০ লক্ষ টাকা, অভ্যন্তরীণ প্রশিক্ষণ ৪৮ লক্ষ টাকা, বৈদেশিক প্রশিক্ষণ ৩ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা, আউট সোর্সিং ৩০ লক্ষ ১৪ হাজার টাকা, রাসায়নিক ৫০ লক্ষ টাকা, চিকিৎসা ও চিকিৎসা সরঞ্জামাদি ৫০ লক্ষ ১ হাজার টাকা, সম্মানি ৩০ লক্ষ টাকা, জরিপ ২৫ লক্ষ, গবেষণা ৫০ লক্ষ, কম্পিউটার সামগ্রী ১৫ লক্ষ, আপ্যায়ন খরচ ১৫ লক্ষ, মোটরযান ১০ লক্ষ, আসবাবপত্র ৫ লক্ষ, কম্পিউটার ৫ লক্ষ টাকাসহ রাজস্ব ব্যয় হবে ১ হাজার ৭৮ কোটি ৫৯ লক্ষ টাকা।
মূলধন বাবদ ব্যয় হবে প্রকল্প পরিচালকের মোটর যান ১ কোটি ৯১ হাজার ৫৭ লক্ষ টাকা, প্রকল্প পরিচালকের অফিস সরঞ্জামাদি ৭ লক্ষ, কলেজের গবেষণা যন্ত্রপাতি ২৫ কোটি ৮২ লক্ষ ৬০ হাজার, হাসপাতালের যন্ত্রপাতি ১৭ কোটি ৩৫ লক্ষ ৪ হাজার, কম্পিউটার ও আনুয়াঙ্গিক ১১ কোটি, কম্পিউটার সফটওয়্যার ২৫ লক্ষ, শিক্ষা ও শিক্ষা উপকরণ ৫০ লক্ষ, হাসপাতালের আসবাবপত্র ৭৮ কোটি ৫ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা, কলেজের আসবাবপত্র ১ কোটি ৬৭ লক্ষ ২৪ হাজার টাকা, প্রকল্প পরিচালকের আসবাবপত্র ৬ লক্ষ ৮৬ হাজার, টেলিফোন সরঞ্জামাদি ৫৩ লক্ষ ৭০ হাজার এবং মূল্য সংযোজন কর ১ কোটি টাকা।
এছাড়াও ভূমি অধিগ্রহণ বাবদ ২৫ কোটি ২৮ লক্ষ ৬০ হাজার, বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি ৭৬ কোটি এবং আবাসিক ভবন ও অনাবাসিক ভবনসমূহ, ফিজিক্যাল কন্টিজেন্সি ও প্রাইস কন্টিজেন্সিসহ মোট ব্যয় এক হাজার একশ’ সাত কোটি সাতাশি লক্ষ আটানব্বই হাজার টাকা।
উল্লেখ্য, গত ৪ নভেম্বর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন লাভ করে ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, সুনামগঞ্জ’ প্রকল্প। সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার কাঠইড় মৌজায় ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, সুনামগঞ্জ’ এর জন্য গত বছরের মার্চ মাসে ৩৫ একর জমি অধিগ্রহণ হয়। সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সুনামগঞ্জ-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়ক ঘেঁষে মদনপুর-দিরাই সড়কের উভয় পাশেই বঙ্গবন্ধু সুনামগঞ্জ মেডিকেল কলেজের স্থাপনা নির্মাণ হবে।
সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য পরিকল্পনা মন্ত্রী (সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী) এমএ মান্নান গেল ৩ বছর হয় এই প্রকল্পের অগ্রগতির জন্য কাজ করেছেন। তাঁর প্রচেষ্টায় প্রকল্পটি বাস্তবায়নের পথে। এমএ মান্নানের পক্ষে শুরুতেই প্রকল্পটির সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন ঢাকায় অবস্থানরত সুনামগঞ্জের তরুণ শিল্প উদ্যোক্তা শ্যামল রায়।
শ্যামল রায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জানিয়েছেন, এই প্রকল্পের অবকাঠামো উন্নয়নসহ অফিসিয়েল কাজ দ্রুতই শুরু হবে।






Related News

Comments are Closed