Main Menu

মেহেরপুরে স্বেচ্ছায় ভৈরব নদীর পাড় দিয়ে তালবীজ বপণের উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ প্রাকৃতিক দুর্যোগ বজ্রপাত ও প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষায়, মেহেরপুরে যুবকেরা স্বেচ্ছায় ভৈরব নদীর পাড় দিয়ে তালবীজ বপণের উদ্যোগ গ্রহণ করে তা বাস্তবায়িত হয়েছে।

অদ্য (১৩ সেপ্টেম্বর/১৯ইং) শুক্রবার বিকাল ৪টার সময়, মেহেরপুর সদর উপজেলার, মেহেরপুর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কালাচাঁদপুর ভৈরব নদী ব্রীজের পূর্ব পাশে, ভৈরব নদী পাড়ের উত্তর-দক্ষিণ পার্শ্ব ঘেঁষে প্রায় ১কিঃমিঃ জুড়ে তালবীজ বপণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছিল এবং তালবীজ বপণ কর্মসূচি বাস্তবায়িত হয়েছে।
এ কর্মসূচির উদ্বোধন ও প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন- চায়না পারভিন, উপ সহকারী কৃষি অফিসার , ব্লক: পৌরসভা মেহেরপুর সদর।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- মোঃ মিরাজুল ইসলাম (মিরাজ) মাষ্টার।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন- তালবীজ বপণের ফলে একদিন তালগাছ অর্থাৎ পাহাড়ী গাছে পরিণত হবে। এবং এই পাহাড়ী গাছগুলোই প্রাকৃতিক বজ্রপাত ও প্রাকৃতির ভারসাম্য রক্ষা করবে।

তরুণ, প্রবীণ, যুবকদের সমন্বয়ে স্বেচ্ছায় ভৈরব নদীর পাড় দিয়ে তালবীজ বপণ উদ্যোগ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে কার্যক্রম আরম্ভ করেছে, মেহেরপুর সদর উপজেলার মেহেরপুর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কালাচাঁদপুর’র কৃতি সন্তান স্বেচ্ছাসেবক এবং “গাছ লাগান যত্ন নিন, জীবন ও পরিবেশ বাঁচান আন্দোলন” কর্মসূচির আহ্বায়ক ও পরিচালক এবং সাহিত্য পত্রিকা “মোমেনশাহী দর্পণ”র সহ-সম্পাদক- এম.সোহেল রানা। তিনি বলেন- “ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভালো কাজই একদিন বড় আকারের রূপ ধারণ করবে”। এ ধরনের পাহাড়ী গাছ গুলোতেই বজ্রপাত ও প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষা করে। গাছ লাগান যত্ন নিন, জীবন ও পরিবেশ বাঁচান এবং শুধুমাত্র গাছ লাগালেয় হবে না, যথাযথ গাছের যত্ন ও পরিচর্যা নিতে হবে। তবেই তো গাছটি বেড়ে উঠবে এবং গাছটি একদিন প্রত্যেকের গুরুত্বপূর্ণ জীবন ও পরিবেশের উপর প্রভাব ফেলবে।

বিশেষ করে, গাছ লাগানো এমন একটা গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম একজন মানুষের জন্য দু’জগতেরই (ইহকাল-পরকাল) পূণ্যতা অর্জন করা সম্ভব। গাছটি বেঁচে থাকবে যত কাল পর্যন্ত প্রাণীকুল উপকৃত হতে থাকবে।

তালবীজ বপণ কর্মসূচিতে আরো যারা স্পটে উপস্থিত ছিলেন- মোঃ শফি, মফিজুল ইসলাম, মুরাদ আলী, নাসিম, পলাশ মিয়া, সুজন, ইজার আলী, হাসিবুল, শিমুল, দিনাজুল, সোহেল রানা-২, আলফাজ, সুজন মিয়া, জিহাদ, শ্রাবণ, পাপ্পু, শোভন, শাকিব, মিরাজ , মহিরুল, ফিয়াজ, আবেদ, ফয়সাল, আহসান প্রমূখ।






Related News

Comments are Closed