Main Menu

মুনাফেক চরিত্রের সাধক বর

এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর
.
আমার…
ভূমিষ্ঠের ক্ষণ হতে ভূমিপৃষ্ঠে অবস্থান
যতোই বাড়ছে ক্রমেক্রমে-
মৃত্যের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছানো সমন
ডাকে ইশারাই হাতছানির মাধ্যমে।

সৃষ্টিকর্তাকে দেয়া ওয়াদা ভুলে মুনাফেক
মানব বিস্তৃত জগৎময়
মা-বাবা মোদের জন্মের উপলক্ষ্যমাত্র
সৃষ্টিকর্তা তিনি একজনায়।

আগে কোথায় কেমন ছিলাম
সৃষ্টির দ্বারা জগতে জনম পেলাম
কোন দায়িত্ব পালনে আসলাম ভবে,
জড়ালাম ভবের মোহ মায়ায়।

ফিরে আবার যেতে হবে প্রাণনাথ
স্রষ্টাকে সেদিন কি জবাব দিবে?
সৃষ্টিকুলে শ্রেষ্ঠ শুকরিয়া কবুল কর
মালিক সাঁই মনোনীত মানবে।

গভীর রজনিতে একা কুঞ্জে প্রগাঢ়
সোহেল নিরজনে নিরালায়-
আপন কর্মের ফল লেখা রবে সেদিন
দেখবে নিজ আমলনামায়।

কেহ সাক্ষী সেদিন আসবেনা দিতে
প্রমাণিত অঙ্গপ্রত্যঙ্গের কথায়
শেষ বিচার দিবসে নিজ আমলনামা
পড়ে নিজেই দিতে হবে রায়।

উম্মাত কান্ডারি নবীজী আমার ইয়া উম্মাতি উম্মাতি বলছেন সদা
সেই নবীর সুুন্নাহ্ ভুলে মশ-গুল ধরণিতলে
নবীর দ্বীন হতে জুদা।

আত্মীয়তার হক ফাঁকি দিয়ে,
বিশ্বাসের দালান গড়েছি পরনিন্দায়
প্রতিবেশীর জমির আইল কাঁটা
কবিরাহ্ গুনাহ্ জানে সে অন্যায়!

পৈত্রিক ভিটা ছেড়ে যারা স্ত্রীভূমিতে
এসে নির্দ্বিধায় করছে বসবাস
নির্লজ্জ কি জানে পৈত্রিকভিটার মর্ম,
সমাজে মূল্যবোধের অবক্ষয়।

নামজাদা সমাজে আছে সম্মান
জমিজমা যা অবৈধ সুদের টাকায়
সমাজ অধিপতি হবে জারজ সন্তান
বিচারক হবে যে ঘরজামাই।

সৎ রোজগারে আহার নিদ্রা বলছি মুখে
অসৎ পথে জীবন-যাপন
রাসূলের সহীহ্-সুন্নাহ্ তরীকাহ
স্বার্থান্বেষী ভাবে কম-বেশি পালন।

দান-খয়রাত আর যাকাত প্রদানেও
কষ্টে কাঁদে নিচু সামর্থ্যকন্তর
গরীব-মিসকিন ছেঁড়া আঁচলে মুখ লুকিয়ে
কাঁদে ন্যায্য দাবিদার।

মানুষ মানুষের প্রতি বিশ্বাস হারা করি
কেমনে আশা স্রষ্টাকে পাবার
অসৎ কাজে সদাব্যস্ত সমাজ পরচর্চা
আর ঈর্ষা-হিংসায় জর-জর।

ভালো কাজের উৎসাহ নেই বাঁধা
শুধু বাঁধা সহস্র ষড়যন্ত্রের শিকার
নির্দ্বিধায় আপন স্বার্থে সাঁজতে রাজি
মুনাফেক চরিত্রের সাধক বর।






Comments are Closed