এই মাত্র পাওয়া খবর
|
সর্বশেষ
জাতিসংঘের কাছে ৯২০মিলিয়ন ডলার আর্থিক সহায়তা চায় বাংলাদেশ         দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে আসতে হবে         রাতভর বোমাতঙ্ক সকালে মিললো বেগুন আতঙ্কে ক্যাম্পাস         আজ ইজতেমার মাঠে সর্বকালের স্বরনীয় জুম্মার জামাতে লক্ষ লক্ষ মুসল্লী ।।         ভাষা আন্দোলনেও বঙ্গবন্ধুর অবদানকে মুছে ফেলা হয়েছিল         দুইমাসের মধ্যে পাঁচ হাজার ডাক্তার নিয়োগ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী         জামায়াত থেকে ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগ         ঠাকুরগাঁও বিজিবি এলাকাবাসী সাথে সংঘর্ষে নিহত ৪জন         The Insider Secrets for Hello World         বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অভিন্ন পদ্ধতিতে শিক্ষক ও কর্মচারী নিয়োগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।         দুর্নীতিবাজ দুদকের দুর্নীতিবাজ আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল         দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো থাকলে বিনা খরচে হজ্বে সুযোগ দিতাম।।ইমরান খান। ।         রাজধানী সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে আগুন         বিশ্বনাথে নুনু মিয়ার সমর্থনে অলংকারী ইউনিয়ন আ’লীগের যৌথ কর্মীসভা         তিন বাংলাদেশি বিপিএল তারকার বোলিং অবৈধ। ।বিসিবি।।।।        

ভিটামিন খাওয়ানো হচ্ছে তা সম্পূর্ণ নিরাপদ। কোনও

প্রকাশিত হয়েছে : ৪:৩৩:৩২,অপরাহ্ন ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | সংবাদটি ১৮ বার পঠিত

হলিবিডি ডেস্কঃ দেশের দুই কোটি ২০ লাখ ৫৪ হাজার শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি)। এ দিন সকাল আটটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত মোট এক লাখ ২০ হাজার স্থায়ী কেন্দ্রে এবং ২০ হাজার ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্র থেকে এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালিক বলেন, ‘এবার দেশীয় প্রতিষ্ঠানের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল শিশুদের খাওয়ানো হবে। যে ভিটামিন খাওয়ানো হচ্ছে তা সম্পূর্ণ নিরাপদ। কোনও ধরনের গুজবে কান না দিয়ে ছয় মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াতে অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

গত ১৯ জানুয়ারি ছিল ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইনের নির্ধারিত দিন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে আমদানি করা ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুলের গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় স্বাস্থ্য অধিদফতর ওই দিনের ক্যাম্পেইন স্থগিত করে।

শনিবার ছয় থেকে ১১ মাস বয়সী প্রায় ২৫ লাখ ৪৭ হাজার শিশুকে একটি করে নীল রঙের এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী এক কোটি ৯৫ লাখ ৭ হাজার শিশুকে একটি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

এছাড়া, ভ্রাম্যমাণ ২০ হাজার কেন্দ্রে বিভিন্ন বাসস্ট্যান্ড, লঞ্চঘাট, ফেরিঘাট, ব্রিজের টোল প্লাজা, বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু ব্রিজ, দাউদকান্দি ও মেঘনা ব্রিজ, বিমানবন্দর, রেলস্টেশন, খেয়াঘাট ইত্যাদি স্থানে স্বেচ্ছাসেবীরা অবস্থান করবেন। প্রতিটি কেন্দ্রে কমপক্ষে দুই জন প্রশিক্ষিত স্বেচ্ছাসেবী দায়িত্ব পালন করবেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, ক্যাম্পেইন দিবসেই ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানো হবে। তবে দুর্গম এলাকা হিসেবে চিহ্নিত ১২টি জেলার ৪৬টি উপজেলার ২৪০টি ইউনিয়নে ক্যাম্পেইন পরবর্তী চার দিন (১০ থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি) বাড়ি বাড়ি গিয়ে শিশুদের সার্চিং কার্যক্রম পরিচালনা করে; বাদ পড়া শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। বাসস

About rezwan rezwan

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com