Main Menu

ভালবেশে দেশ ছেড়েও শেষ রক্ষা হলো না তৃষ্ণার স্বামী আটক ভারতে, তাকেও পাঠানো হবে নিজদেশে

হলিবিডি ডেস্কঃ ভালবেসে ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে করে দেশে ছেড়েছিল ১৪ বছর বয়সি তৃষ্ণা জানা। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না তার। বেরসিক পুলিশ তাকে আটক করে ফেরৎ পাঠাচ্ছে নিজ ভূমিতে। তৃষ্ণা ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার ফ্রেজারগঞ্জ কোস্টাল থানার পূর্ব অমরাবতী গ্রামের সাগর জানার মেয়ে। সে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।
পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমকেএইচ জাহাঙ্গীর হোসেন এক প্রেসব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন, জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার বাংলাদেশ নামে একটি সংগঠনের মাধ্যমে জানতে পারেন, তৃষ্ণা জানা নামে এক ভারতীয়কে বাংলাদেশে পাচার করা হয়েছে। এই ঘটনায় দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার ফ্রেজারগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলার আসামি রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার পারকুল গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে আকবর আলী (২৭)। তিনি বর্তমানে সেদেশের জেলে বন্দি আছেন।
আকবর আলী ৮ বছর ধরে ভারতের গুজরাট রাজ্যের একটি গার্মেন্টেসে কাজ করতেন। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে মোবাইল ফোনে মিসড কলের মাধ্যমে তৃষ্ণা জানার সাথে তার পরিচয়। এরপর মোবাইল ফোনে কথা বলার এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।
গত ২৫ এপ্রিল দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার বকখালী নামক স্থানে তৃষ্ণার সাথে তার দেখা হয়। এরপর তারা বিয়ে করে বাংলাদেশে পালিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেয়। সিদ্ধান্ত মোতাবেক ২৭ এপ্রিল ব্যবহৃত কাপড় নিয়ে সে আকবরের সাথে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। মালদহ জেলায় আকবরের এক আত্মীয়’র বাড়িতে উঠে। সেখানে তৃষ্ণা হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে মুসলিমা নাম ধারণ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে। মালাদহে তিনদিন থাকার পর তারা হিলি সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশে ঢোকে এবং রাজবাড়ির কালুখালী উপজেলায় পারকুল গ্রামের আকবরের বাড়িতে বসবাস করতে থাকেন। এরপর আকবর তাকে বাড়িতে রেখে ফের ভারতে যায়। মোবাইল ফোন ট্রাকিং ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আকবরকে সেখানকার পুলিশ আটক করে। এই ঘটনায় দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার ফ্রেজারগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়। এ মামলায় আকবরকে সেখানকার পুলিশ আটক দেখায়।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম আরো জানিয়েছেন, জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার বাংলাদেশে নামক একটি আর্ন্তজাতিক সংগঠন বিষয়ে আমলে নিয়ে পিবিআই এর শরণাপন্ন হয়। পরে তাদের কাছ থেকে তথ্য উপাত্ত নিয়ে গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাজবাড়ি থেকে তৃষ্ণা জানাকে উদ্ধার করে যশোরে নেয়া হয়। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে একটি সেল্টারহোমে রাখা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর তৃষ্ণা তার দেশে ফিরতে পারবে।
তিনি আরো বলেছেন, বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী তৃষ্ণা অপ্রাপ্ত বয়ষ্ক। ফলে তার নিজ সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার থাকবে না। ধর্মান্তরিত বা বিয়ে করার সিদ্ধান্ত আদালত মানবে না। তবে ভারতীয় আইনে কী আছে তা বলা মুসকিল। সেদেশের আইন অনুযায়ী আকবর বা তৃষ্ণার বিচার হবে।






Related News

Comments are Closed