Main Menu

বিমানের পাইটলকে ছাড়াতে পাসপোর্ট নিয়ে উড়ে গেল রিজেন্ট

হলিবিডি ডেস্কঃ : বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জ্যেষ্ঠ পাইলট ক্যাপ্টেন ফজলে মাহমুদকে কাতার থেকে ফিরিয়ে আনতে রিজেন্ট এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে তার পাসপোর্ট পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় রিজেন্ট এয়ারওয়েজের আরএফ ৭৫৩ ফ্লাইটটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে কাতারের উদ্দেশ্য ছেড়ে যায়।

যদিও রিজেন্ট এয়ারওয়েজের ওই ফ্লাইটের ছেড়ে যাওয়ার নির্ধারিত সময় ছিলো সোয়া ৬টা। কিন্তু ওই ফ্লাইটে বিমানের পাইলটের পাসপোর্ট পাঠাতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিবের অনুরোধে ফ্লাইটটি দেরি হয় বলে বিমানবন্দর সূত্র জানিয়েছে।

বিমানের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীকে ওই পাইলটই দেশে ফিরিয়ে আনবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিন দেশে সরকারি সফরের অংশ হিসেবে বর্তমানে ফিনল্যান্ডে অবস্থান করছেন। শনিবার (০৮ জুন) তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, বিদেশ সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনতে বুধবার রাতে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বোয়িং ৭৮৭ মডেলের একটি ড্রিমলাইনার দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যায়। বিশেষ এই বিমানের পাইলট ছিলেন ক্যাপ্টেন ফজল মাহমুদ। তিনি পাসপোর্ট ছাড়াই কাতার যান, যেটি ধরা পড়ে সেদেশের ইমিগ্রেশনে। পরে তাকে ইমিগ্রেশনে আটকে রাখা হয়।

আইন অনুযায়ী, পাসপোর্ট ছাড়া কারো দেশত্যাগ কিংবা অন্য দেশে প্রবেশের সুযোগ নেই।

পরে কাতার এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ফজল মাহমুদের পাসপোর্ট দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পাঠানোর চেষ্টা করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। কিন্তু কাতার এয়ারলাইন্স পাসপোর্ট বহনে অস্বীকৃতি জানায়। কাতার এয়ারলাইন্স জানায়, স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি ছাড়া একজনের পাসপোর্ট্‌ বহনের নিয়ম নেই।






Related News

Comments are Closed