Main Menu

ফেঞ্চুগঞ্জে সরকারী অনুমতি ছাড়া বিদ্যালয়ের গাছ কাটা নিয়ে লিখিত অভিযোগ

এমরান আহমেদ ফেঞ্চুগঞ্জ সিলেট :::::
সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার কায়স্থগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রায় ৫০বছরের পুরনো বৃহৎ একটি আকাশী গাছ সম্প্রতি চুরি হয়ে গেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কমিটির সভাপতি বরাবরে।

সৈয়দ রিয়াছত আলী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য, ফেঞ্চুগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের সাবেক ভি.পি এ.বি.এম.কিবরিয়া ময়নুল এ অভিযোগ প্রদান করেন।উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম বরাবরে।

তিনি অভিযোগে উল্লেখ করেন উপজেলার কায়স্থগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দক্ষিণ প্রান্তে প্রায় ৫০বছরের পুরনো বৃহৎ একটি আকাশী গাছ ছিলো সম্প্রতি বিদ্যালয়ে গেলে সে গাছ দেখতে পাইনা এবিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষিকাকে জিজ্ঞাস করলে তিনি নিরবতা পালন করেন এবং বিষয়টি এড়িয়ে যান তাতে আমার সন্ধেহ হয় গাছের গোলাই বেড় প্রায় ৮ফুট এবং উচ্চতায় ৮০ ফুট ছিল। যাহার বাজার মূল্য আনুমানিক এক লক্ষ টাকা হবে।

এ ব্যাপারে ২৬ সেপ্টেম্বর কায়স্থগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মাওলানা হারুনুর রশিদ এর সাথে এই প্রতিনিধি যোগাযোগ করলে তিনি বলেন গাছ চুরি হয়নি গত মার্চের শেষের দিকে ঝড়ের কবলে গাছটি পড়ে যায়। পাশের বাড়ির বাসিন্দাদের সমস্যা হওয়ার কারনে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভা ডেকে সকলের সিদ্ধান্তক্রমে, শিক্ষা অফিসকে অবহিত করে গাছটি কেটে ফেলা হয়।

এবিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রিনা ভট্টাচার্য্যরে সাথে আলাপকালে তিনিও জানান- একি কথা এক পর্যায়ে তিনি বলেন বর্তমানেও গাছের টুকরোগুলো বিদ্যালয়ে রয়েছে।সরেজমিন গাছের টুকরোগুলো দেখতে গেলে গিয়ে দেখা যায় গাছের টুকরো নেই রয়েছে ২০/ ২৫ পিছ চিরানো তক্তা। এতো বড় গাছের এতোঠুকু তক্তা কেন এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষিকা বলেন গাছের ডালপালা বিক্রি করে আমরা গাছ কাটার মজুরি ও গাছ চিরানোর মজুরি দিয়েছি আর এই তক্তা দিয়ে বিদ্যালয়ের বিভিন্ন আসবাবপত্র বানানোর জন্য রেখেছি।

এবিষয়ে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসের নাম্বারে একাধিকবার ফোন দেয়া হলে,,,,, ফোন রিসিভ হয়নি।






Related News

Comments are Closed