Main Menu

পৌরসভায় উন্নীত বিশ্বনাথে উপজেলা আ’লীগের আনন্দ র্যা লীর প্রস্তুতি সভা

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি
প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা ‘পৌরসভা’য় উন্নীত হওয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বুধবার (২৩ অক্টোবর) বাদ আসর প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে আনন্দ র্যা লী অনুষ্ঠিত হবে। আনন্দ মিছিলকে সফল ও সার্থক করে তুলতে মঙ্গলবার বিকেল ২টায় উপজেলা আওয়ামী লীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য এস এম নুনু মিয়া।
বিশ্বনাথ উপজেলাকে ‘পৌরসভা’য় উন্নীত করায় প্রধানমন্ত্রীকে উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, সারা দেশের সাথে তাল মিলিয়ে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাবে বিশ্বনাথ। উপজেলার পাশাপাশি পৌরসভাতে আসা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র গ্রহন করা বিভিন্ন প্রকল্পে বিশ্বনাথবাসীর কাঙ্খিত উন্নয়ন বাস্তবায়িত হবে। আর সদ্য উন্নীত বিশ্বনাথ পৌরসভার প্রথম প্রশাসক হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খান’কে নিযুক্ত করার জন্য সভা থেকে আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খানের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক মকদ্দছ আলীর পরিচালনায় প্রস্তুতি সভায় বক্তব্য রাখেন রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের পক্ষে বিশ্বনাথ সদরের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত আলী জাহান, রামপাশার সভাপতি নজরুল ইসলাম, দৌলতপুরের সভাপতি হাজী আরিফ উল্লাহ সিতাব, দেওকলসের সভাপতি আবদুল মোমিন, অলংকারীর সাধারণ সম্পাদক তফজ্জুল আলী, দশঘরের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস মিয়া, খাজাঞ্চীর যুগ্ম সম্পাদক মিজাজুল হোসেন, লামাকাজীর দপ্তর সম্পাদক আবু-বক্কর মোঃ ফয়ছল।
বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি ছুরাব আলী, সাধারণ সম্পাদক আবদুল হান্নান বদরুল, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি হাজী আমির আলী, কার্যকরী সভাপতি ফজর আলী মেম্বার, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, সাবেক কার্যকরী সভাপতি শংকর দাশ শংকু, যুবলীগ নেতা গিয়াস উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শীতল বৈদ্য, বিশ্বনাথ সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা কামরুল ইসলাম।
এসময় সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হাজী ইরন মিয়া, সেলিম আহমেদ সেলিম, যুগ্ম সম্পাদক শাহ ফয়েজ আহমদ সেবুল, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আবদুল মতিন, দপ্তর সম্পাদক সাহিদুল ইসলাম সাহিদ, প্রচার সম্পাদক নিখিল পাল, বন ও পরিবেশ সম্পাদক রুনু কান্ত দে, সহ দপ্তর সম্পাদক নুরুল হক, সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন, কার্যনির্বাহী সদস্য শেখ নূর মিয়া, মানিক মিয়া, আনোয়ার আলী, মিজানুর রহমান মিজান, অলংকারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাজী হিরা মিয়া, দশঘর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তজম্মুল আলী, আওয়ামী লীগ নেতা নূুরুল ইসলাম, সিতাব আলী, ছালিক মিয়া মেম্বার, উপজেলা শ্রমিক লীগের নির্বাহী সম্পাদক আজাদ মিয়া, যুগ্ম সম্পাদক শাহজাহান সিরাজ, শ্রমিক লীগ নেতা আছকির আলী, মতছির আলী, মহানগর যুবলীগ নেতা সাফায়েত খান, যুবলীগ নেতা আবদুর রউফ, দবির মিয়া, তাহির আলী বাবুল, নূরুজ্জামান মিয়া, সায়েদ আহমদ, এমদাদ হোসেন নাঈম, রাজু আহমদ খান, সাইদুল ইসলাম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ডাঃ বিভাংশু গুন বিভু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সিজিল মিয়া, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি নজরুল ইসলাম প্রিন্স, সাংগঠনিক সম্পাদক জুবায়ের আহমদ জয়, ছাত্রলীগ নেতা মিয়াদ আহমদ, আশরাফ উদ্দিন, কবির উদ্দিন, হিমেল আহমদ, জাকির হোসেন প্রমুখসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সংগঠন এবং বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার ব্যাক্তিবর্গ।

বিশ্বনাথে সরকারি ভূমির গাছের
ডালপালা কর্তন করার অভিযোগ
বিশ্বনাথ প্রতিনিধি
সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলার প্রগতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বিশ্বনাথ-হাবড়া-ছালিয়া সড়কের পার্শ্বের সরকারি ভূমির থাকা বিভিন্ন প্রজাতির গাছের ডাল অবৈধভাবে কর্তন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অবৈধভাবে গাছের ডালপালা কর্তন করার অভিযোগ এনে বিশ্বনাথের সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবরে সোমবার বিকেলে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার সদর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ মিরেরচর গ্রামের আফরুজ আলীর পুত্র শাহিন আহমদ অভিযোগটি দায়ের করেন।
লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, উপজেলার সদর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ মিরেরচর গ্রামের মৃত আর্শ্বদ আলীর পুত্র মখলিছ আলী জোরপূর্বকভাবে গত ১৮ অক্টোবর উপজেলার প্রগতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বিশ্বনাথ-হাবড়া-ছালিয়া সড়কের পার্শ্বের সরকারি ভূমির থাকা বিভিন্ন প্রজাতির গাছের ডাল অবৈধভাবে কর্তন করে বিক্রি করেছেন। তাই এর বিরুদ্ধে দ্রুত তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য দাবী জানান তিনি।
এব্যাপারে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতেমা-তুজ-জোহরা বলেন, তদন্ত সাক্ষেপে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।






Comments are Closed