জাতিসংঘে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত কিয়াও মোয়ে তুন এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন মিয়ানমারে যা হচ্ছে তার বিচার করার এখতিয়ার হেগের আদালতের নেই।

প্রকাশিত হয়েছে : ৭:৩০:১৩,অপরাহ্ন ১১ মার্চ ২০১৯ | সংবাদটি ৩৬ বার পঠিত

হলিবিডি ডেস্কঃ কিন্তু জাতিসংঘে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত কিয়াও মোয়ে তুন এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বলেন, মিয়ানমারে যা হচ্ছে তার বিচার করার এখতিয়ার হেগের আদালতের নেই।

২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনীর কঠোর অভিযানের মুখে প্রায় সাত লাখ ৪০ হাজার সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। এই রোহিঙ্গাদের অধিকাংশই কক্সবাজারে শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিয়েছে।

বাংলাদেশে পালিয়ে আসা এই রোহিঙ্গাদের নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচরে পুনর্বাসনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রাথমিকভাবে এক লাখ রোহিঙ্গার পুনর্বাসনের জন্য ২ হাজার ৩১২ কোটি টাকার একটি প্রকল্প নেয়া হয়।

প্রকল্পটি ২০১৯ সালের ৩০ নভেম্বরের মধ্যে বাস্তবায়ন হবে। প্রকল্পের আওতায় চরের ভূমি উন্নয়ন ও তীররক্ষা বাঁধ নির্মাণ-সহ এক হাজার ৪৪০টি ব্যারাক হাউস নির্মাণ করছে সরকার। এছাড়া ১২০টি শেল্টার স্টেশন, মসজিদ, দ্বীপটির নিরাপত্তার জন্য নৌ-বাহিনীর অফিস ভবন ও কর্মকর্তাদের বাসভবনও রয়েছে। অভ্যন্তরীণ সড়ক, পানি সরবরাহ ও নিষ্কাশন অবকাঠামো নির্মাণের পাশাপাশি প্রকল্প এলাকায় থাকবে নলকূপ ও পুকুর।

About rezwan rezwan

https://gnogle.ru/project/edit/102
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com