Main Menu

ক্যাম্পে থাকা ১১লাখ রোহিঙ্গাদের গতিবিধি নিয়ন্ত্রণে কাজ করবে সেনাবাহিনী: সেনা প্রধান

হলিবিডি ডেস্কঃ মিয়ানমার থেকে এসে ক্যাম্পে থাকা ১১ লাখ রোহিঙ্গাদের গতিবিধি নিয়ন্ত্রণে সরকারের এ সিদ্ধান্তে কাজ করবে সেনাবাহিনী জানিয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ সোমবার চট্টগ্রামের হালিশহরে আর্টিলারি সেন্টার ও স্কুলে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৪টি গোলন্দাজ ইউনিটকে রেজিমেন্টাল কালার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের একথা জানান সেনাপ্রধান।

সেনাপ্রধান বলেন, সেনাবাহিনীকে একটা দায়িত্ব দিয়েছে সরকার। যে ১১ লাখ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আছে, তারা ক্যাম্প থেকে বের হয়ে যখন-তখন, যত্রতত্র চলে যাচ্ছে। ক্যাম্পের বাইরে নানা ঘটনা ঘটছে। সরকার এগুলোকে নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ক্যাম্প ঘিরে কাঁটাতারের বেড়া দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেনাবাহিনীকে সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া তাদের গতিবিধি যাতে কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে আনা যায়, সরকার সেনাবাহিনীকে সেই দায়িত্ব দিয়েছে।

সেনা প্রধান জেনারেল আজিজ আরোও বলেন, এই মুহুর্তে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আমাদের ওপর যে দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে, আমরা সেটা যথাযথভাবে করব। পরিকল্পনা তৈরি হচ্ছে। রোহিঙ্গাদের নিয়ে সরকারের যে কোনো চিন্তাকে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে সমর্থন দেওয়া হবে।

জেনারেল আজিজ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর যে চিন্তা-চেতনা সেটাকে বাস্তবায়ন করা, সেটাকে সমর্থন দেওয়া বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সেনাপ্রধান হিসেবে আমার নৈতিক দায়িত্ব। আমাদের কাজ হচ্ছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর চিন্তাকে সমর্থন করে যাওয়া এবং এটার জন্য যা দরকার তা করে যাওয়া। আর রোহিঙ্গা সংকটে সেনাবাহিনীকে এ পর্যন্ত যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, আমরা চেষ্টা করেছি পেশাদারিত্বের সঙ্গে সেটা সুন্দরভাবে পালন করতে।

বিভিন্নসময় মিয়ানমারের উসকানিমূলক কর্মকাণ্ডের বিষয়ে সেনাপ্রধান বলেন, ‘আমাদের পলিসি হচ্ছে, সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব রাখব, কারও সঙ্গে বৈরিতা নয়। আমাদের দেশ অর্থনৈতিকভাবে অগ্রসর হচ্ছে। কেউ যদি আমাদের উসকানিও দেয়, আমরা সেটা থেকে যথাসম্ভব সংযত থাকব। আমাদের অর্থনৈতিক অগ্রগতি এ মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি কাম্য।

এর আগে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সেনাপ্রধান বলেন, ‘বাংলাদেশ সেনাবাহিনী মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত। দেশমাতৃকার অখণ্ডতা রক্ষার দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি দেশের অভ্যন্তরে যে কোনো দুর্যোগ মুহূর্তে জনগণের সেবায় তাদের পাশে এসে কাজ করেছেন সেনাসদস্যরা। শুধু দেশের অভ্যন্তরে নয়, বিশ্বপরিমণ্ডলেও বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কাজ করে যাচ্ছে, বয়ে আনছে সুনাম ও মর্যাদা। সেবা ও কর্তব্যপরায়ণতার মাধ্যমে আমাদের সেনানিরা জনগণের শ্রদ্ধা, ভালোবাসা এবং সমস্ত জাতির আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১৪, ২৬ ও ৩০ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি এবং ২১ এয়ার ডিফেন্স রেজিমেন্ট আর্টিলারি কালার প্যারেডে অংশ নেয় এবং সেনাপ্রধানের কাছ থেকে রেজিমেন্টাল পতাকা গ্রহণ করে। এ সময় অনুষ্ঠিত প্যারেডে কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন লে. কর্ণেল রুবায়েত মাহমুদ। চারটি রেজিমেন্ট আর্টিলারির কন্টিনজেন্টগুলোতে নেতৃত্ব দেন যথাক্রমে ক্যাপ্টেন ফাহিম, ক্যাপ্টেন সাইদুর, ক্যাপ্টেন রিয়াদ ও মেজর আশিক।

অনুষ্ঠানে সাবেক সেনাপ্রধান অবসরপ্রাপ্ত লে. জেনারেল মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমানসহ রেজিমেন্ট আর্টিলারির প্রাক্তন কমান্ড্যান্ট ও এরিয়া কমান্ডাররা ছিলেন। এছাড়া সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর চট্টগ্রাম অঞ্চলের কমান্ডাররা এবং সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।






Related News

Comments are Closed