Main Menu

একদিন খানা খেতে…!

এম.সোহেল রানা, মেহেরপুর
.
একদিন খানা খেতে গিয়ে ছিলাম বংশকূল আত্মীয় বাড়িতে আমার, বসি গিয়ে খাবার টেবিলের কোণে রক্ষা করতে হক যে আত্মীয়তার।
হিংস্র জানোয়ারের ন্যায় কি আচরণ দেখতে পেলাম চোখে কারো কারো, দাওয়াতে এসেছে যেন মরণ খাবার খেতে ভাত অল্প গোস্ত পাতে আরো।

অতিথি আপপায়োন খাজিনদার যত পরিবেশিত থালায় ভর্তি ভাত গোস্ত তবুও হায়েনাদের থাবা পড়ে হিংস্র বিবেকহীন মানুষ নষ্ট করতে ব্যস্ত।
গোস্ত হাড়ি থেকে তুলছে সরা-সরা ভাগাড়ে এসেছে যেন দল শকুনের, খাবার খায় অল্প দেখি ফেলছে বেশি ধুঁকছে ক্ষুধার্ত কুকুর ডাস্টবিনের।
এই…পাতে আরো দে ভাত না গোস্ত রাখালের হাক হাকে নির্বোধ চাড়াল, এতটুকু শিক্ষা বুঝি দেয়নি বাবা-মায় কোথা কেমন হয় ভাষা প্রয়োগ কাল,

মানুষ যদি বিশ্বাসী রিজিক দাতার! নষ্ট করে খাবার চায় সে কেমন করে, অন্নের হিসাবে সেদিন হবে পেরেশান অন্ন ধ্বংসই করছো চিন্তা না করে।

খেতে দেওনি জগতে গরিব-মিশকিন অন্যের অন্ন শুধুই খেয়েছো চিরদিন, হাসর মাঠে দাঁড়াবে হয়ে পাওনাদার কেমনে করিবে শোধ খাবারের ঋণ।
পোশাকে ভদ্র দেখি অন্দর অন্ধকার চরিত্রের বিচার হয় শুনে কথাবার্তা, বিবেক,বুদ্ধি,জ্ঞান যার আছে মানবতা অল্পতে সন্তুষ্টি তাঁহারে রাখে সৃষ্টিকর্তা।






Comments are Closed