Main Menu

আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয় মাধ্যমিক শাখা এম পি ভূক্ত হওয়াতে প্রতিষ্ঠাতার পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা

মোঃ ইদু খান স্টাফ রিপোর্টারঃ সুনামগঞ্জ জেলা দিরাই উপজেলা কুলঞ্জ ইউনিয়ন টংগর গ্রামের আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয় মাধ্যমিক শাখা এম পি ভূক্ত হওয়াতে স্কুল শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটি ও প্রতিষ্ঠাতার পরিবারের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। সুনামগঞ্জ-২ আসনের এম.পি. ড. জয়া সেন গুপ্তা, মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ড. দিপু মনি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী- শেখ হাসিনাকে আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি এবং বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলহাজ্ব মাসুক মিয়ার পরিবারের পক্ষ থেকে অসংখ্য শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ।।

প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলহাজ্ব মাসুক মিয়ার ছেলে সুজন মিয়া বলেন, বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ছায়ার মত পাশে আছেন আমার চাচা যুক্তরাজ্য প্রবাসী আলহাজ্ব জাহান মিয়া, জনাব কুটি মিয়া শাহ আদিল, বড় ভাই মোতাহির মিয়া, বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ এবং বিদ্যালয়ের শুভাকাঙ্ক্ষী এলাকাবাসীকে সর্বোপরি সহযোগিতার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জনাই। বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা আমার পরম শ্রদ্ধেয় পিতা মরহুম অালহাজ্ব মাসুক মিয়ার লালিত স্বপ্ন আজ বাস্তবায়িত হয়েছে। বেঁচে থাকলে তিনিই সবচেয়ে বেশি খুশি হতেন। সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন।।

আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলহাজ্ব মাসুক মিয়ার বড় যার অক্লান্ত পরিশ্রম শিক্ষার আলো দেখানো এলাকাবাসীকে মোঃ মোতাহির মিয়ার সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমরা সবাই অন্তত মনে রাখতে হবে, শিক্ষার প্রকৃত স্বাধ পেতে হলে জাতিকে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। কারণ শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড। শিক্ষা ছাড়া কোনো জাতি উন্নতি লাভ করতে পারে না। যে জাতি যত বেশি শিক্ষিত সে জাতি তত বেশি উন্নত।

বর্তমান প্রতিযোগিতা মুলক বিশ্বে সু-শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। আধুনিক তথ্য নির্ভর বিশ্বায়নের যুগে গতানুগতিক ধারার সরকারী শিক্ষা ব্যবস্থাই পর্যাপ্ত নয়। এক্ষেত্রে বেসরকারী উদ্যোগে যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে সেগুলোকে স্বীকৃতি দিতে হবে এবং সরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নীতিবান শিক্ষকদের কোয়ালিটি বৃদ্ধি, সময়নিষ্ঠা ও নিজ কর্তব্য সম্পর্কে আরও সচেতন করে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তবেই দেশের পশ্চাদপদ জনগোষ্ঠীকে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত করা সম্ভব হবে।

তাই সরকারের সংশ্লিষ্ট মহল ও স্কুল মেনেজমেন্ট কমিটির যথাযথ ব্যক্তি বর্গের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলতে চাই সরকারী প্রতিষ্ঠান গুলোর চলমান অবস্থার দিকে নজর দিন তবেই সুচিত হবে গুনগত মানসম্মত একটি সুন্দর শিক্ষা ব্যবস্থা সর্বোপরি সুন্দর একটি জাতি যা বিশ্বায়নের যুগে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সক্ষম হবে ইনশাআল্লাহ। এটাই জাতির প্রত্যাশা। তাই আসুন বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোকে হেও প্রতিপন্ন না করে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিনির্মাণ করি কোয়ালিটি বহুল একটি শিক্ষা ব্যবস্থা। যে ব্যবস্থায় কবির বানী স্বার্থক হয় যে, আজকের শিশুরাই আগামী দিনের ভবিষ্যত।

আমার বাবা মরহুম আলহাজ্ব মাসুক মিয়া স্কুলের জন্য অনেক পরিশ্রম করেছেন, আরো পরিশ্রম করেছেন অর্থ এলাকার সকল পেশাদার জনগণ। আমার পক্ষ থেকে মাননীয় এমপি ডঃ জয়া সেন গুপ্তা ও মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী ডঃ দিপু মনি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ও আমার অত্র এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি, স্কুল শিক্ষক, স্কুল ম্যানিজিং কমিটি, সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। দেশবিদেশ আপনারা সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন।

আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয় শুরু থেকেই যিনি দিনরাত পরিশ্রম করে অত্যান্ত দক্ষতার সাথে বিদ্যালয়টি পরিচালনা করে যাচ্ছেন, যার পরিশ্রম দক্ষতায় আজ হাওর পারের মানুষ সুশিক্ষিত হওয়ার সপ্নের আলো পেয়েছে, তিনি হলেন, বর্তমান স্কুল প্রধান শিক্ষক মোঃ লুৎফুর রহমান। তিনি বলেন, দিরাই উপজেলা কুলঞ্জ ইউনিয়ন ভাটি এলাকা হাওর পারে আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয়, সেই বিদ্যালয়ে শিক্ষার্তিরা জীবন ঝুকি নিয়ে বর্ষা মৌসুমে লেখাপড়া করতে হয়। এই অর্থ এলাকার মানুষ বুঝতে পারছেন শিক্ষাই জাতির আলো। কারণ তারা জীবন ঝুঁকি নিয়েই হাওর পারি দিয়ে নিয়মিত স্কুল ক্লাস করেন।

প্রথমে আমি আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয় পরিবারকে আমার অন্তরের অন্তর স্তল থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই ও আমার স্কুল শিক্ষক সকল শুভাকাঙ্ক্ষী ও সার্বক্ষণিক সহযোগীতায় আছেন অত্র এলাকার সর্বজনীয়। আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয় এমপি ভূক্ত হওয়াতে মাননীয় সংসদ সদস্য ডঃ জয়া সেন গুপ্তা ও মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী দিপু মনি ও বঙ্গবন্ধুর কন্যা দেশরত্ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।
অর্থ এলাকার শিক্ষার্তি অবিভাবকদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা বলেন, আলহাজ্ব আব্দুল মতলিব উচ্চ বিদ্যালয় না হলে আমাদের এখানকার ছাত্রদের পড়াশোনা করাতে অনেকটা কষ্টকর হয়ে যেতো। আমরা স্কুল প্রতিষ্ঠাতা পরিবারকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন ও স্কুল সকল শিক্ষক শুভাকাঙ্ক্ষী নিয়মিত সকল শিক্ষার্তি সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।






Related News

Comments are Closed