Main Menu

অনেকে বাংলাদেশ নালিশ পার্টি বলে, আমি বলছি না’ : তথ্যমন্ত্রী

হলিবিডি প্রতিনিধিঃ
বিএনপিকে অনেকে ব্যঙ্গ করে নালিশ পার্টি বলে জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘আমি বলছি না।’ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

বুধবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খানের গুলশানের বাসায় ঢাকায় নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করে ঐক্যফ্রন্ট, যে জোটে বিএনপিও রয়েছে।

কূটনীতিকদের সঙ্গে এই বৈঠকের বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমত তারা বারবার কূটনীতিকদের সঙ্গে বসার মাধ্যমে এটিই প্রমাণ করছেন যে, জনগণের ওপর তাদের কোনো আস্থা নেই। বিদেশিদের ওপর তাদের সমস্ত ভরসা। যাদের জনভিত্তি নেই, তারাই কিন্তু বারবার কূটনীতিকদের কাছে যায়।’

তিনি বলেন, ‘কোনো একটা কিছু হলে আপনারা দেখতে পাবেন, বিএনপি বিদেশিদের ডেকে নালিশ উপস্থাপন করে। বিএনপিকে, অনেকে এজন্য ব্যঙ্গ করে বলে, বাংলাদেশ নালিশ পার্টি। অনেকে ব্যঙ্গ করে বলে, আমি বলছি না।’

‘প্রকৃতপক্ষে এভাবে বারবার বিদেশিদের সামনে তারা বাংলাদেশের বিষয় নিয়ে উপস্থিত হয়ে কথা বলে তারা প্রমাণ করে, তাদের আস্থা বাংলাদেশের জনগণের ওপর নয়, বরং বিদেশিদের ওপর। তো এটি সত্যি তাদের জন্য অত্যন্ত লজ্জার’,- বলেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

মির্জা ফখরুল আগামী মাস থেকে আন্দোলনের কথা জানিয়েছেন- এ বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কোন বছরের অক্টোবর মাস থেকে সেটি হলো প্রশ্ন। উনি অক্টোবর মাস থেকে আন্দোলন শুরু করবেন বলেছেন, সেটা কোন বছরের অক্টোবর, সেটি অনেকে প্রশ্ন রেখেছেন।’

তিনি বলেন, ‘কারণ ওনারা তো এভাবে ১০ বছর ধরে বলে আসছেন- ঈদের পর আন্দোলন, শীতের পর আন্দোলন, গরম কম পড়লে তখন আন্দোলন, বৃষ্টি একটু কমে গেলে আন্দোলন, বার্ষিক পরীক্ষার পর আন্দোলন। এভাবে বহু আন্দোলনের তারিখ আমরা দেখেছি। কিন্তু তাদের পক্ষে কোনো আন্দোলন গড়ে তোলা সম্ভব হয়নি।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মির্জা ফখরুল কথা বলার ক্ষেত্রে অত্যন্ত সফল, কিন্তু কার্যক্ষেত্রে প্রচণ্ড বিফল।’

বিএনপির আন্দোলনের সক্ষমতা রয়েছে কি না জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আসলে তাদের সঙ্গে তো জনগণ নেই। জনগণ তো দূরের কথা, যারা এই ধরনের আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছেন, তাদের সঙ্গে তাদের কর্মীরাও নেই। যেই নেতারা হাইকোর্টে বোরকা পরে হাজির হন, তাদের ওপর তো কর্মীদের আস্থা থাকার কথা নয়।’






Related News

Comments are Closed